ফায়ার ফাইটার যখন বিপদের বন্ধু!

রাজবাড়ী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:১৬

বিদ্যালয়ের পুকুরে মাধ্যমিক স্কুলপর্যায়ের গ্রীষ্মকালীন সাঁতার প্রতিযোগিতা ছিল। দুপুর মেয়েদের একটি দলের সাঁতার প্রতিযোগিতা শুরু হয়। এর মধ্যে একটি মেয়ে সাঁতার শুরু করে পুকুরের মাঝামাঝি গিয়ে দুর্বল হয়ে পড়ে। সাঁতরাতে না পেরে সে ডুবে যাওয়ার উপক্রম হয়। এসময় তার চিৎকার শুনে পুকুরপাড়ে কর্তব্যরত ফায়ার ফাইটার মো. শাহরিয়ার আহমেদ ঝাঁপিয়ে পড়ে মেয়েকে উদ্ধার করে পাড়ে নিয়ে আসেন। একটু বিলম্ব হলে মেয়েটিকে হয়তো বাঁচানো যেত না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে সাহাজদ্দিন মণ্ডল ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের সাঁতার প্রতিযোগিতা চলার সময় এ ঘটনা ঘটে।

গোয়ালন্দ উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের ফায়ার ফাইটার মো. হাফিজুল ইসলাম বলেন, সাঁতার প্রতিযোগিতার স্থানে মো. শাহরিয়ার আহমেদ, রেজাউল করিম এবং আমি নিজ কর্তব্যরত ছিলাম। সাঁতারে ছেলেরা মোটামুটি ভালো হলেও মেয়েরা দেখলাম খুবই দুর্বল। আমরা বেশ কয়েকটি মেয়েকে খারাপ অবস্থা হতে উদ্ধার করি। শাহরিয়ার আহমেদ যে মেয়েটিকে উদ্ধার করেন তার অবস্থা খুব খারাপ ছিল। সে হেল্প বলে একটু চিৎকার দেওয়ামাত্রই কাছাকাছি স্থানে থাকা শাহরিয়ার আহমেদ দ্রুততার সঙ্গে ওই মেয়েটিসহ অন্য একটি মেয়েকে উদ্ধার করেন। ওদের সাহায্য করতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত।

এ বিষয়ে কথা বলতে শাহরিয়ার আহমেদের মোবাইল ফোনে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া মডেল হাইস্কুলের ক্রীড়া শিক্ষক ও ৪৯তম গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মোতালেব হোসেন বলেন, যে কোনো ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কায় আমরা আগে থেকেই সাঁতার প্রতিযোগিতার স্থানে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিমের উপস্থিতি নিশ্চিত করি।

(ঢাকাটাইমস/৯সেপ্টেম্বর/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :