জ্বালানি সংকট: প্রতিবেশী দেশগুলোতে বিদ্যুৎ রপ্তানি কমাবে জার্মানি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৪:৫৪ | প্রকাশিত : ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৪:০৮

ইউরোপে শীতকাল শুরু হতে আর বেশি দেরি নেই। শীত প্রধান ইউরোপীয়ান দেশগুলোতে প্রচুর পরিমাণে জ্বালানি প্রয়োজন পড়ে। কিন্তু ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের প্রভাবে জ্বালানি সরবরাহ নিয়ে দেখা দিয়েছে নানান জটিলতা। এরই মধ্যে আসন্ন শীতকালে ফ্রান্সসহ প্রতিবেশী দেশগুলোতে বিদ্যুৎ রপ্তানি সীমিত করতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে জার্মানি।

ফাইন্যান্সিয়াল টাইমসের প্রতিবেদনে জার্মানির শীর্ষস্থানীয় গ্রিড অপারেটর অ্যামপ্রিয়নের চিফ টেকনিক্যাল অফিসার হেনড্রিক নিউম্যানকে উদ্ধৃত করে এমনটিই জানানো হয়েছে।

জার্মানির মধ্যে বিদ্যুৎ বিভ্রাট এড়াতে এই ব্যবস্থাটি ‘শেষ অবলম্বন’ হিসেবে প্রয়োগ করা যেতে পারে বলে ধারণা বিশ্লেষকদের। নিউম্যানের ভাষ্যমতে, বিদ্যুৎ রপ্তানি সম্ভবত ‘দিনব্যাপী নয়’ এক সময়ে কয়েক ঘন্টার জন্য বন্ধ থাকতে পারে।

ফাইন্যান্সিয়াল টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিউম্যান বলেছেন, আসন্ন শীতকালে আমরা অত্যন্ত চাপযুক্ত পরিস্থিতিতে পড়ার অনুমান করছি। জার্মানি এবং বৃহত্তর ইইউতে বর্তমান শক্তি সংকট শুধু ইউক্রেনের চারপাশের পরিস্থিতি এবং রাশিয়ার সঙ্গে পরবর্তী নিষেধাজ্ঞা যুদ্ধের কারণে আংশিকভাবে সৃষ্ট। অন্যান্য যে কারণগুলো রয়েছে তার মধ্যে ফ্রান্সের প্রায় অর্ধেক পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ, পানির স্তর কমে যাওয়ার ফলে কয়লা ডেলিভারির সমস্যা ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

এছাড়াও বেশিরভাগ বায়ুবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রগুলি থেকে এর প্রধান গ্রাহক এবং শিল্প কারখানার দূরত্বের কারণে এই সমস্যা ত্বরান্বিত হচ্ছে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

বহু বছর ধরে একটি বড় শক্তি রপ্তানিকারক দেশ জার্মানি। উদাহরণস্বরূপ, নেটওয়ার্ক নিয়ন্ত্রকের তথ্য অনুসারে গত বছর আমদানির চেয়ে অন্যান্য ইইউ দেশগুলিতে ১৭ হাজার ৪০০ গিগাওয়াট ঘন্টা বেশি বিদ্যুৎ বিক্রি করেছে দেশটি।

ফ্রান্স এবং অস্ট্রিয়া জার্মানির প্রধান শক্তি ক্রেতা। ফ্রান্স এই বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ মাসে জার্মানি থেকে ৬ হাজার গিগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করেছে। এই সংখ্যাটি গত বছরের একই সময়ের তুলনায় পাঁচ গুণ বেশি ছিল বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, জার্মান বিদ্যুৎ রপ্তানি হ্রাস হলে ফ্রান্সে সরবরাহের ঘাটতি বৃদ্ধি পেতে পারে। গত মাসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলির সমস্যার কারণে ইতালিতে দুই বছরের জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করতে পারে ফ্রান্স। যদিও এসব দাবি অস্বীকার করেছে দেশটি।

ফরাসি সরকার দেশের রাষ্ট্রীয় ইউটিলিটি ইডিএফকে বর্তমানে নিষ্ক্রিয় ৩২টি পারমাণবিক চুল্লি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পুনরায় চালু করার জন্য অনুরোধ করছে। ক্ষয়জনিত সমস্যার কারণে তারা এই বছরের শুরুর দিকে অফলাইনে চলে গেছে এবং এখনও পর্যন্ত রক্ষণাবেক্ষণে অধীনে রয়েছে।

ইডিএফ সম্প্রতি বলেছে, পাওয়ার প্ল্যান্টগুলো পরনো হয়ে যাওয়ায় এদের পারমাণবিক শক্তি উৎপাদন ৩০ বছরের বেশি সময়ের মধ্যে সর্বনিম্ন স্তরে নামতে চলেছে।

(ঢাকাটাইমস/০৫অক্টোবর/এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

জাতিসংঘ রেজুলেশনে অন্তর্ভুক্ত হলো বঙ্গবন্ধুর উক্তি

ক্ষমতায় আসার পর প্রথমবার প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করলো তালেবান

মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে থাই উপকূলে আটকা পড়েছে ১৫০ রোহিঙ্গা

স্পেনে দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ, আহত দেড় শতাধিক

জার্মানিতে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের মামলায় গ্রেপ্তার ২৫

উত্তর কোরিয়ার পরবর্তী পার্লামেন্ট অধিবেশন জানুয়ারিতে

‘রাশিয়ায় ইউক্রেনের হামলাকে উৎসাহিত করছে না যুক্তরাষ্ট্র’

কর জালিয়াতির মামলায় ট্রাম্প অর্গানাইজেশন দোষী সাব্যস্ত

পোল্যান্ডের কাছে ১১৬ আব্রামস ট্যাঙ্ক বিক্রি করছে যুক্তরাষ্ট্র

ইন্দোনেশিয়ায় বিয়ে ছাড়া যৌন সম্পর্কে জড়ালেই সর্বোচ্চ সাজা ১ বছর

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :