স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ ১৫ জন নিহতের খবর নিশ্চিত করল ইউক্রেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৮:০০ | প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭:৫২

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ ১৫ জন নিহতের খবর নিশ্চিত করেছে দেশটি। কিয়েভের পূর্বাঞ্চলের একটি কিন্ডারগার্টেনের পাশে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয় বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

এ ঘটনায় দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ডেনিস মোনাস্তার্সকি ছাড়াও স্বরাষ্ট্র উপমন্ত্রীও নিহত হয়েছেন। এছাড়া নিহতদের মধ্যে দেশটির ঊধ্বর্তন কর্মকর্তা ও তিনটি শিশু রয়েছে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ফরাসি তৈরি সুপার পুমা হেলিকপ্টারটি রাজধানীর পূর্ব উপকণ্ঠে ব্রোভারির উপকণ্ঠে একটি আবাসিক এলাকায় বিধ্বস্ত হলে বিমানটিতে থাকা নয়জন এবং মাটিতে থাকা ছয়জন মারা যান। এর মধ্যে তিন শিশু রয়েছে। এর আগে কর্মকর্তারা প্রাথমিকভাবে ১৮ জন নিহতের সংখ্যা জানিয়েছিলেন।

আঞ্চলিক গভর্নর জানান, ১৫ শিশুসহ আরো ২৯ জন আহত হয়েছেন।

প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি দুর্ঘটনাটিকে একটি ভয়ানক ট্র্যাজেডি বলে অভিহিত করেছেন এবং বলেছেন যে সম্পূর্ণ হতাহতের সংখ্যা এখনও নির্ধারণ করা হচ্ছে এবং তিনি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘এই মিনিটে, তিনটি শিশু মারা গেছে। ব্যথা অবর্ণনীয়।’

ঘটনাস্থলে, একটি কর্দমাক্ত খেলার মাঠে ধ্বংসাবশেষ ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল এবং জরুরী কর্মীরা অ্যাম্বুলেন্সের একটি বহর নিয়ে জড়ো হয়েছিল।

একটি উঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নীল ইউনিফর্ম এবং কালো বুট পরা বেশ কয়েকটি মৃতদেহ পড়ে রয়েছে, তাদের ওপর ফেনা কম্বলের নীচে থেকে দৃশ্যমান। বিমানের একটি বড় অংশ একটি গাড়ির ওপর পতিত হওয়ায় সেটিও ধ্বংস হয়ে যায়।

জাতীয় পুলিশ প্রধান ইহর ক্লাইমেনকো নিশ্চিত করেছেন যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ডেনিস মোনাস্টিরস্কি তার প্রথম ডেপুটি, ইয়েভেনি ইয়েনিন এবং রাষ্ট্রীয় জরুরি পরিষেবার পরিচালিত হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি নিহত হয়েছেন।

ইউক্রেনের কর্মকর্তারা বলেছেন, হেলিকপ্টারটি কী কারণে বিধ্বস্ত হয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে পরিষ্কার নয়। গত ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন আক্রমণকারী রাশিয়ার কাছ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করা হয়নি এবং ইউক্রেনের কর্মকর্তারা ওই সময়ে ওই এলাকায় কোনো রাশিয়ান হামলার কোনো উল্লেখ করেননি।

বিমান বাহিনীর মুখপাত্র ইউরি ইহানাত বলেছেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত, আকাশে কোনো ভুল হলে তার নেই, যেমনটি পাইলটরা বলে। তবে কারণগুলি সম্পর্কে কথা বলার মতো তদন্ত এখনো হয়নি। বিপর্যয়টি তদন্ত করতে কমপক্ষে কয়েক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে।’

(ঢাকাটাইমস/১৮জানুয়ারি/এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :