গাজায় যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানোর আহ্বান ন্যাটো মহাসচিবের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১১ | প্রকাশিত : ২৯ নভেম্বর ২০২৩, ১২:০৮

মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গ বলেছেন, তিনি আশা করেন যে ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে মানবিক যুদ্ধবিরতির মেয়াদ সম্প্রসারণ করা হবে। তিনি বলেন, যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানো হলে গাজার জনগণের জন্য প্রয়োজনীয় ত্রাণ, আরও জিম্মিদের মুক্তি এবং আরও মানবিক সহায়তার ব্যবস্থা করার সুযোগ পাওয়া যাবে।

মঙ্গলবার ব্রাসেলসে ন্যাটো পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের অনানুষ্ঠানিক বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তুর্কি বাতাসংস্থা আনাদলুর প্রতিবেদনে বলা হয়, ন্যাটো পররাষ্ট্রমন্ত্রীরাও মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জানিয়ে তিনি উল্লেখ করেছেন, ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতির মেয়াদ বাড়ানোকে তারা স্বাগত জানিয়েছেন এবং আশা করেন এটির মেয়াদ আরও বাড়ানো হবে।

সংঘাতে ন্যাটোর ভূমিকা সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে স্টলটেনবার্গ পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, জোট হিসেবে ন্যাটো ইসরায়েল-হামাস সংঘাতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে না। তবে কিছু মিত্র বিভিন্ন উপায়ে সক্রিয় রয়েছে।

তিনি বলেন, ‘ন্যাটো সরাসরি জড়িত নয়... তবে এ সংঘাতটি একটি বড় আঞ্চলিক সংঘাতে পরিণত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখছে ন্যাটো।’

স্টলটেনবার্গ বলেন, ‘এ সংঘাত থেকে উদ্ভূত চ্যালেঞ্জগুলো নিয়েও আমরা আলোচনা করেছি। আমি এই বিষয়ে বিস্তারিতভাবে সমাধান করার জন্য বিশেষজ্ঞদের একটি স্বাধীন দল নিয়োগ করেছি। তারা আগামী বসন্তের মধ্যে সুপারিশ জমা দেবে।’

বিশেষজ্ঞদের কাজ সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে ন্যাটো প্রধান বলেছেন, ‘তারা ঠিক কী সিদ্ধান্ত নেবে তা এখনি বলা যাবেনা। তবে জোটের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রতিবেশীদের মধ্যে আমরা যে অস্থিতিশীলতা দেখতে পাই তার একটি অংশও মধ্যপ্রাচ্যে কয়েক দশক ধরে চলা অস্থিরতা এবং সংঘাতের সাথে যুক্ত।

এদিকে গত ২৪ নভেম্বর থেকে ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে চারদিনের একটি যুদ্ধবিরতি শুরু হয়। পরে সেটি আরও দুদিন বাড়ানো হয়।

কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, চলমান মধ্যস্থতার অংশ হিসেবে গাজা উপত্যকায় মানবিক যুদ্ধবিরতি অতিরিক্ত দু’দিনের জন্য বাড়ানোর একটি চুক্তি হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী, দুইদিনে ১০ জন করে মোট ২০ জিম্মিকে মুক্তি দেবে হামাস। এর বিনিময়ে দু’দিনে ইসরায়েলের কারাগারে বন্দী থাকা ৬০ ফিলিস্তিনি মুক্তি পাবেন।

অন্যদিকে, ইসারেয়েল-হামাসের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির পঞ্চম দিনে ইসরায়েলের কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন আরও ৩০ ফিলিস্তিনি বন্দি। বিনিময়ে ১২ ইসরায়েলি জিম্মিকে মুক্তি দেয় ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। গত ২৪ নভেম্বর যুদ্ধবিরতি শুরু হওয়ার পর থেকে এ নিয়ে ইসরায়েল ১৮০ ফিলিস্তিনি বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে এবং হামাস ৮১ জিম্মিকে মুক্তি দিয়েছে।

উল্লেখ, গত ৭ অক্টোবর গাজা থেকে ইসরায়েলে নজিরবিহীন হামলা চালায় ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। তারপর থেকেই গাজায় বিমান ও স্থল হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। গত দেড়মাস ধরে ইসরায়েলি হামলায় নিহতের সংখ্যা ইতোমধ্যেই ১৫ হাজার ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে ১০ হাজারের বেশি শিশু ও নারী রয়েছেন। এছাড়া কমপক্ষে ৩০ হাজার মানুষ আহত হয়েছেন।

(ঢাকাটাইমস/২৯নভেম্বর/এমআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

ইউক্রেনের চেয়ে গাজায় ৬ গুণ বেশি নারী-শিশু নিহত

শর্ত না মানলে কারাগারের ভেতরেই শায়িত করা হবে নাভালনির মরদেহ

চীনের নানজিংয়ে আগুনে ১৫ জনের মৃত্যু

নির্বাচনের ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ: সুপ্রিম কোর্টে ইমরানের পিটিআই

অনুমতি ছাড়া হজ করলে যে গুরুদণ্ড দেবে সৌদি কর্তৃপক্ষ 

দ্বিতীয় রাশিয়ান এ-৫০ গুপ্তচর বিমান ভূপাতিত করার দাবি ইউক্রেনের

সেনাবাহিনীতে যোগ দেওয়ার শর্তে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দিতে চায় মিয়ানমারের জান্তা সরকার

ঢাকা সফরে আসছেন মার্কিন উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী

শপথ নিলেন পাকিস্তানের পাঞ্জাব বিধানসভার নবনির্বাচিত এমপিরা

গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় ৪০ ফিলিস্তিনি নিহত, প্রাণহানি ছাড়াল সাড়ে ২৯ হাজার  

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :