স্বামী হত্যার অভিযোগে গৃহবধূ আটক

কুমিল্লা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪৯

কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলায় স্ত্রীর পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় স্বামী সুমনকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালানোর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় স্ত্রী তিশা আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের দুই কন্যা সন্তান রয়েছে।

মঙ্গলবার উপজেলার নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের পৈয়াপাথর গ্রামের খলিলুর রহমানের বাসায় এই ঘটনা ঘটে।

মৃত সুমন উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের মৃত মরম আলী ড্রাইভারের ছেলে। স্ত্রী তিশা আক্তার একই গ্রামের মাহফুজ মিয়ার মেয়ে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সুমন তিশা পরিবহনের বাসচালক। এক মাস আগে সুমন মুরাদনগর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ পৈয়াপাথর এলাকার ব্যবসায়ী খলিলুর রহমানের বাড়িতে বাসা ভাড়া নেয়। সুমনের অনুপস্থিতিতে ওই বাসায় বহিরাগত ছেলেদের আনাগোনা প্রায়ই দেখা যেত। এ নিয়ে প্রতিনিয়ত স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া লেগে থাকত।

নিহতের বোন পারভীন আক্তার বলেন, স্ত্রী তিশার পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় আমার ভাই সুমনকে হত্যা করা হয়েছে। সুমনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে প্রচার করছে তিশা ও তার পরিবারের সদস্যরা।

নিহতের স্ত্রী তিশা জানান, তার স্বামী সুমন সোমবার রাতে ঝগড়া করে। সেই ঝগড়ার জের ধরে মঙ্গলবার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

মুরাদনগর থানার ওসি একেএম মনজুর আলম বলেন, স্ত্রীর পরকীয়ার কারণে প্ররোচিত হয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথামিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। সুমনের ভাই ফারুক বাদী হয়ে আত্মহত্যা প্ররোচনার একটি মামলা করেছেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর রহস্য নিশ্চিত হওয়া যাবে।

(ঢাকাটাইমস/২৬ফেব্রুয়ারি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :