‘ধর্ষকের’ শাস্তি চেয়ে রাজধানীতে রাস্তা অবরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ জুলাই ২০১৯, ১৯:৩৫

শিক্ষকের হাতে সহপাঠীকে ‘ধর্ষণের’ অভিযোগ তুলে তার বিচারসহ ছয় দফা দাবিতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন মোহাম্মদপুর সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর মিরপুর সড়কের আসাদগেট আড়ংয়ের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়। এ সময় মিরপুর রোডকে ঘিরে চারমুখী সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। রবিবারও বিক্ষোভ করেছেন প্রতিষ্ঠানটির বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীরা।

পরে বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে শিক্ষার্থীরা সড়ক ছেড়ে দেন। পরবর্তী কর্মসূচি পরে জানানো হবে বলে ঢাকা টাইমসকে জানান, আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী তাইজুল ইসলাম শাহিন।

শিক্ষার্থীরা জানান, কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ এ কে এম রেজাউল করিম রতন দায়িত্বে থাকা অবস্থায় কলেজের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের এক ছাত্রীকে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে কোমল পানীয়ের সাথে চেতনানাশক পান করিয়ে ধর্ষণ করেন। এরপর ওই ঘটনার ভিডিও চিত্র প্রকাশ করার ভয় দেখিয়ে টানা এক বছর ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন।

পরবর্তীতে অভিযুক্ত রেজাউল করিম পদোন্নতি পেয়ে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব হন। তবে ঘটনার বিচার দাবি করে ধর্ষণের স্বীকার ওই ছাত্রী মামলা করলে রেজাউল করিমকে সাময়িক বরখাস্ত করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই শিক্ষার্থীর সঙ্গে এমন ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন কলেজটির শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের ছয় দফা দাবি হলো- রেজাউল করিমের ফাঁসি, দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের নিরাপত্তা প্রদান, মামলার কর্মসূচি দ্রুত শেষ করা, ধর্ষণের সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড, কোন প্রকার জামিন মঞ্জুর না করা, মামলার কাজ শেষ না হাওয়া পর্যন্ত আসামিকে আইনের আওতায় রাখা।

সমাবেশে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘মিডিয়ায় তাকালেই দেখি আমাদের বোনেরা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রতিনিয়ত এভাবেই নিজ প্রতিষ্ঠানে ধর্ষিত হচ্ছেন। এতো ধর্ষকের কথা শোনো, কিন্তু ন্যায্য বিচার পেতে শুনেছ কখনো? পায়নি।’

তারা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘আমরা ছাত্রছাত্রীরা বিচার না পেলে বিচার আদায় করে নিতে জানি। যা হয়তো ধর্ষক সমাজ জানে না।’

দাবি আদায়ের আগ পর্যন্ত কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলেও জানান আন্দোলনকারীরা।

(ঢাকাটাইমস/৮জুলাই/কারই/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :