অবসরের সিদ্ধান্ত নিতে সময় চেয়েছেন মাশরাফি

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৫:৪৬

গত বৃহস্পতিবার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন, দুইদিনের মধ্যে তিনি মাশরাফির কাছে তার অবসরের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানবেন। শনিবার বিসিবিতে আসেন মাশরাফি। তিনি কথা বলেছেন বিসিবি সভাপতির সঙ্গে। তবে, এখনই অবসরের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাননি তিনি।

মাশরাফির সঙ্গে কথা বলার পর বিসিবি সভাপতি বলেছেন, মাশরাফি তার অবসরের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য দুই মাস সময় চেয়েছেন।

ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার আগেই মাশরাফি জানিয়েছিলেন, এই বিশ্বকাপই তার শেষ বিশ্বকাপ। তখন থেকেই গুঞ্জন ছিল, বিশ্বকাপে শেষ ম্যাচ খেলেই হয়তো মাশরাফি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে গুডবাই বলবেন। কিন্তু না। বিশ্বকাপ খেলে তিনি অবসর ঘোষণা করেননি।

ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল এই অধিনায়ক ২০১৭ সালে আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেট থেকে অবসর নেন। আর ২০০৯ সালের পর থেকে টেস্ট ক্রিকেটের বাইরে আছেন। বর্তমানে তিনি শুধু ওয়ানডে ক্রিকেট চালিয়ে যাচ্ছেন।

দুর্দান্ত ফর্ম নিয়েই ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ শুরু করেন মাশরাফি। তবে এই মেগা ইভেন্টে তিনি মোটেই নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। আট ম্যাচে উইকেট শিকার করেছেন মাত্র একটি। মুলত তারপরই মাশরাফির অবসর গুঞ্জন শুরু হয়। এমন অবস্থার মধ্যেই তিনি শ্রীলংকা সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু দল দেশ ছাড়ার আগ মুহূর্তে ইনজুরিতে পড়ায় শেষ মুহূর্তে লংকা সফর থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেন তিনি।

নাজমুল হাসান পাপন আগেই বলেছিলেন, তারা মাশরাফিকে উপযুক্ত বিদায় দিতে চান। দেশের ক্রিকেটে তার অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে বিসিবি একটি হোম সিরিজ আয়োজন করতে চায়।

এ বছর যেহেতু দেশের মাটিতে বাংলাদেশ দলের কোন ওয়ানডে সূচি নেই। তাই মাশরাফিকে বিদায় দিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটি ওয়ানডে ম্যাচ আয়োজন করতে চায় বিসিবি।

আফগানিস্তানসহ একটি ত্রিদেশীয় টি-২০ সিরিজে অংশ নিতে আগামী মাসে বাংলাদেশ সফরে আসবে জিম্বাবুয়ে। উল্লেখ্য, আফ্রিকার দেশ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ২০০১ সালে ওয়ানডে অভিষেক ঘটেছিল মাশরাফির।

(ঢাকাটাইমস/১৭ আগস্ট/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :