‘পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবেই, বাদ যাবে দু’কোটি’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:১৫

পশ্চিমবঙ্গে নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) হবেই বলে কলকাতায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির দাবির একদিন পর দিল্লিতে বিজেপি সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে বসার আগে একই দাবি তুললেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। 

এখানে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় রিসার্চ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘সেভ বেঙ্গল’ নামে একটি আলোচনাসভায় তিনি বলেন, ‘অসমের ধাঁচে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবে। তাতে প্রায় দু’কোটি মানুষ বাদ যাবে। বিদেশি নাগরিকেরা এসে রাজ্য তথা দেশের সম্পদ নষ্ট করছে। তা রুখতেই এনআরসি প্রয়োজন।’

পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি রুখতে পথে নেমে প্রতিবাদ জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তা নিয়ে দিলীপ কটাক্ষ করে বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর পুরনো অভ্যাস আছে কিছু হলেই রাস্তায় নেমে পড়া। বাড়ি থাকতে পারেন না। সেই অভ্যাস বজায় রাখতেই তিনি রাস্তায় নামছেন। ২০২১ সালের পরে তো রাস্তাতেই নামতে হবে। তবে যেই রাস্তায় নামুক, পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবেই।’

পশ্চিমবঙ্গে এখন পাখির চোখ বিজেপি সভাপতির। রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকে এদিন তিনি পশ্চিমবঙ্গে দলের সাংগঠনিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন। গোষ্ঠিদ্বন্দ্ব ভুলে সকলকে এখন থেকেই ২০২১ এর বিধানসভা ভোটের প্রস্তুতিতে ঝাঁপিয়ে পড়তে বলেছেন তিনি। জনসংযোগ বাড়াতে আসন্ন দুর্গাপুজোর মৌসুমকে কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি। খোদ সভাপতি অমিত শাহ পশ্চিমবঙ্গে বেশ কয়েকটি পুজোর উদ্বোধন করতে পারেন। অমিতের আগে মহালয়ায় দলের কার্যকরী সভাপতি জেপি নড্ডা যেতে পারেন পশ্চিমবঙ্গে।

লোকসভা ভোটে জঙ্গলমহল ও উত্তরবঙ্গে ভাল ফল করলেও কলকাতা ও লাগোয়া এলাকায় ফল ভাল হয়নি বিজেপির। এখনও দেখা যাচ্ছে কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়ায় সদস্য আশানুরূপ ভাবে বাড়ছে না। এই সমস্যা কাটাতে বিকল্প পথ খুঁজবে ক্ষমতাসীন বিজেপি।

ঢাকা টাইমস/১২সেপ্টেম্বর/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর