ডিএনসিসির নতুন ১৮ ওয়ার্ডে পরিচ্ছন্নতায় জোরদার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৮:৫৪

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের জন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে ১৮ জন করে কর্মী নিযুক্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রতিটি ওয়ার্ডের মশা মারতে আরও ১৩ জন করে কর্মী কাজ করবে। সংশ্লিষ্ট এলাকার জন্য বড় অঙ্কে প্রকল্প বরাদ্দ নেয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন উত্তর সিটি মেয়র আতিকুল ইসলাম।

বুধবার নগরীর ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রজাপতি গার্ডেন, সাতারকুল থেকে নতুন সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা জানান।

মেয়র বলেন, ‘এখন থেকে নতুন সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডের প্রতিটিতে ২৫ জন করে পরিচ্ছন্নতাকর্মী এবং ১৩ জন করে মশক নিধন কর্মী কাজ করবেন। ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে এসব পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও মশক নিধন কর্মীরা কাজ করবেন।’

পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও মশক নিধন কর্মীদের উদ্দেশে মেয়র বলেন, ‘কাজে কোনো প্রকার ফাঁকি দেয়া যাবে না, সততার সাথে কাজ করতে হবে।’

জনগণের উদ্দেশে মেয়র বলেন, ‘পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম শুধু পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের ওপর নির্ভর করে না, আমাদের মানসিকতার ওপরও নির্ভর করে। পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা পরিষ্কার করবেন, আর অন্যরা রাস্তা-ঘাট ইত্যাদি ময়লা করবে এটা কাম্য নয়। একশ ফিট রাস্তার ময়লা ইতিমধ্যে পরিষ্কার করে দিয়েছি, আপনাদের তা ধরে রাখতে হবে।’

সম্প্রসারিত ১৮টি ওয়ার্ডে রাস্তা, ফুটপাত, ড্রেন ইত্যাদি নির্মাণের জন্য চার হাজার ২০০ কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘নতুন প্রতিটি ওয়ার্ডে খেলার মাঠ, কমিউনিটি সেন্টার, কাচাবাজার ইত্যাদি থাকবে।’

রাস্তায় ময়লা-আবর্জনা না ফেলতে বিজয়ের মাসে নগরবাসীকে ‘প্রতিজ্ঞা’ করার আহ্বান জানান মেয়র আতিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ডিএনসিসির সচিব রবীন্দ্রশ্রী বড়ুয়া, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর মঞ্জুর হোসেন, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ আহমেদ, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি জাকির হোসেন, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/১১ডিসেম্বর/কারই/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :