লকডাউন উঠলেই ঐশ্বরিয়ার শুটিং

বিনোদন ডেস্ক
| আপডেট : ৩০ মে ২০২০, ১০:০৭ | প্রকাশিত : ৩০ মে ২০২০, ১০:০৩

অতিমারী করোনাভাইরাসের কারণে গোটে বিশ্বেই সিনেমার শ্যুটিং বন্ধ। তবে চলচ্চিত্রকাররা মনে করছেন, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে এই পরিস্থিতির পরিবর্তন হবে। তাইতো বলিউডের সাবেক বিশ্বসুন্দরী ও নামকরা অভিনেত্রী ঐশ্বরিয়া রাইকে নিয়ে কাজে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন দক্ষিণী সিনেমার বিখ্যাত পরিচালক মণি রত্নম।

১০ বছর আগে এই পরিচালকের ‘রাবণ’ নামের একটি সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন বচ্চন পরিবারের পুত্রবধূ ঐশ্বরিয়া। সেই সিনেমা দারুণ সাড়া ফেলেছিল। ব্যবসাও করেছিল ভালো। ১০ বছর পর আরও একবার মণি রত্নমের সঙ্গে জুটি বেঁধে পর্দায় চমক দেখাতে তৈরি হচ্ছেন ঐশ্বরিয়া।

মণি রত্নমের নতুন সিনেমাটির নাম ‘পন্নিইন সেলভান’। মার্চে এটির শ্যুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে ভেস্তে যায় সব পরিকল্পনা। এখন নতুন করে সবকিছুর পরিকল্পনা করছেন নির্মাতা কর্তৃপক্ষ। তারা চাচ্ছেন, কীভাবে মূল ডেডলাইনেই কাজ শেষ করা যায়।

তার জন্য পরিচালক মণি রত্নম একটি পরিকল্পনাও করেছেন। সেটি হল, লকডাউন উঠে গেলে এক ধাক্কায় তিনি এই সিনেমার শ্যুটিং শেষ করবেন। অর্থাৎ বিরতিহীন ভাবে চলবে শ্যুটিং। জানা গেছে, এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে শ্যুটিং শিডিউল এমনভাবে তৈরি করা হচ্ছে, যাতে ২০২১ সালেই ছবিটি মুক্তি পায়।

পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই সিনেমার প্রধান দুই চরিত্র অভিনেতা বিক্রম ও ঐশ্বরিয়ার টানা ডেট নেয়া শুরু হয়েছে। সব কিছু ঠিক থাকলে ঐশ্বরিয়া এবং বিক্রমকে নিয়ে পুদুচেরিতে কাজ শুরু হবে। যদি আউটডোর শ্যুটিংয়ের অনুমতি না পাওয়া যায়, তাহলে চেন্নাইয়ের এভিএম স্টুডিওতে শুটিং হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা।

ব্লকবাস্টার ‘বাহুবলী’ সিনেমাটির মতো ঐশ্বরিয়া অভিনীত ‘পন্নিইন সেলভান’ও পিরিয়ড ড্রামা এবং এটিও মুক্তি পাবে দুটি পর্বে। এই সিনেমার কাহিনির কেন্দ্রে রয়েছে মহান চোল সম্রাট আরুলমাঝি বর্মণের সম্রাট হওয়ার আগের জীবন। ঐশ্বরিয়া থাকবেন দ্বৈত ভূমিকায়। সব কিছু ঠিক থাকলে জুলাইয়ে শ্যুটিং শুরু হওয়ার সম্ভাবনার রয়েছে।

ঢাকাটাইমস/৩০মে/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :