ধর্ষকদের পুরুষত্ব কেড়ে নেয়ার আইন হচ্ছে পাকিস্তানে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
| আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১৪:৩৭ | প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১৩:২৮

ধর্ষণের ক্রমবর্ধমান ঘটনায় নতুন আইন পাস করতে যাচ্ছে পাকিস্তান। নতুন আইনে রয়েছে- ধর্ষক প্রমাণিত হলে তাকে রাসায়নিক ইনজেকশন প্রয়োগ করে পুরুষত্বহীন করে দেয়া হবে। ধর্ষণের ঘটনায় দ্রুত বিচারের জন্য এমন আইন আনতে যাচ্ছে দেশটি।

ধর্ষকের শাস্তি হিসেবে দুটি পদ্ধতির অনুমোদন দিয়েছে দেশটির মন্ত্রিসভা। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই দুট আইনের নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। খবর ডনের

খবরে বলা হয়েছে, ধর্ষণ মামলার দ্রুত নিষ্পত্তি করতে মহিলা পুলিস নিয়োগ করা হবে। ধর্ষণের বিরুদ্ধে নতুন আইন তৈরি করা হবে। কোনো অস্বচ্ছতা রাখা হবে না সেই আইনে। গোপন রাখা হবে ধর্ষিতার নাম ও পরিচয়।

ধর্ষক প্রমাণিত হলে তার শরীরে ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে এক বিশেষ ধরনের রাসায়নিক পদার্থ দেহে ভরে দেওয়া হবে। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পুরুষত্ব হারাবে সে। সংসদে পাস হলে এটি আইনে পরিণত হবে।

এছাড়া ধর্ষকের শাস্তি হিসেবে ফাঁসির কথাও রয়েছে খসড়া আইনে। ধর্ষনের শাস্তি হিসেবে ধর্ষকের প্রকাশ্যে ফাঁসি চেয়েছিল সাধারণ মানুষ। তবে খসড়া আইনে প্রকাশ্যে ফাঁসির বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি ৭ বছরের বালিকা ও এক তরুণীর গণধর্ষণে উত্তাল হয়ে ওঠে পাকিস্তান। সমীক্ষা বলছে, পাকিস্তানে প্রতিঘণ্টায় একজন নারী ধর্ষিতা হন। এরপরই পাকিস্তানে যৌন নিগ্রহ রুখতে বিচার ব্যবস্থাকে কঠোর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইমরানের সরকার।

ঢাকা টাইমস/২৫নভেম্বর/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :