আল্লামা শফী হত্যা মামলা প্রত্যাহারে হুমকির অভিযোগ বাদীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৬ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭:৪৮

হেফাজতে ইসলামের প্রয়াত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে হত্যা করা হয়েছে এমন অভিযোগ এনে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করা তার শ্যালক মো. মঈন উদ্দিন অভিযোগ করেছেন, মামলাটি প্রত্যাহারে তাকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয়া হচ্ছে। হেফাজতের বর্তমান আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ও তার অনুসারীরা এই হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ আল্লামা শফীর শ্যালকের।

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মঈন উদ্দিন বলেন, ‘শফী হুজুরকে হত্যা করার পর আমরা সত্য কথা বলতে পারিনি। আমাদের পরিবারের সব সদস্যকে একের পর এক হত্যার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। আমাদের পরিবার থেকে আমি বাদী হয়ে আদালতে মামলা করেছি। নানাভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে মামলা যাতে প্রত্যাহার করে নিই। জুনায়েদ বাবুনগরী যদি অপরাধী হয়ে থাকেন, তদন্তে যদি প্রমাণ হয় তবে তার শাস্তি দাবি করছি। দোষী না হলে তা তদন্তে প্রমাণ হবে। আমাদের মামলা প্রত্যাহার করার হুমকি কেন দিচ্ছেন। এর তীব্র নিন্দা জানাই। সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছি, মামলাটির তদন্ত যাতে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হয় এবং অন্যায়কারীদের শাস্তি হয়।’

আলোচিত মামলাটির বাদী বলেন, ‘পিবিআই মামলার তদন্ত করছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় জুনায়েদ বাবুনগরী, মামুনুল হকেরা একের পর এক হুমকি দিয়ে চলেছেন মামলা প্রত্যাহারের জন্য। আমরা জানতে পেরেছি হাটহাজারী মাদ্রাসার নিরীহ শিক্ষক ও ছাত্রদের জুনায়েদ বাবুনগরী ব্যক্তিগতভাবে উস্কানি দিচ্ছেন। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে হাটহাজারী মাদ্রাসাকে ব্যবহার করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। হাটহাজারী মাদ্রাসার মতো পবিত্র জায়গাকে কুলষিত করার জন্য তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

মঈন উদ্দিন বলেন, ‘২৩ ডিসেম্বর সংবাদ সম্মেলনে বাবুনগরী বলেছেন, শফী হুজুরের মৃত্যু স্বাভাবিক ছিল। এটা মিথ্যাচার। পরিবারের পক্ষ থেকে করা মামলা ষড়যন্ত্রমূলক ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেছেন। বাবুনগরী মিথ্যাচার করেছেন।’

সংবাদ সম্মেলনে হেফাজতের সাবেক নেতা মো. মাঈনুদ্দিন রুহী, আবুল কাশেম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। হেফাজতে ইসলামের ব্যানারে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হলেও তারা স্বীকার করেন হেফাজতের বর্তমান কমিটিতে তাদের কোনো পদ নেই।

প্রসঙ্গত, হাটহাজারী মাদ্রাসায় ছাত্রদের আন্দোলনের মুখে পদ থেকে সরে যাওয়া আল্লামা আহমদ শফী ১৮ সেপ্টেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার মুত্যুর প্রায় তিন মাস পর ১৭ ডিসেম্বর চট্টগ্রামের একটি আদালতে হত্যার অভিযোগ এনে মামলা করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/২৬ডিসেম্বর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বন্দর নগরী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :