বাড়ি ফেরার পথে প্রবাসী যুবকের সর্বস্ব লুট

ফেনী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৩ জুন ২০২১, ১৬:৩৫ | প্রকাশিত : ১৩ জুন ২০২১, ১৬:৩৪

কর্মস্থল থেকে ছুটি নিয়ে গ্রামের বাড়ি ফেরার পথে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ মোগড়াপাড়ায় ডাকাতের কবলে পড়ে সর্বস্ব খুইয়ে এখন দিশেহারা ফেনীর দাগনভূঞার সৌদি প্রবাসী মো. একরাম হোসেন শাহিন (২৬)।বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকা বিমানবন্দর থেকে ভাড়া গাড়িতে বাড়ি ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে।

ডাকাতের কবলে পড়ে সবকিছু খোয়ানোর পর মহাসড়কে বসে গড়িয়ে গড়িয়ে কাঁদতে থাকা এক যুবকের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে বিষয়টি প্রকাশ পায়।

দিনরাত পরিশ্রম করে বিদেশে দীর্ঘ তিন বছর কাটানোর পর এই যুবক অনেক স্বপ্ন নিয়ে প্রিয় স্বদেশে ফেরেন। কিন্তু প্রিয়জনদের সঙ্গে আনন্দের সময় কাটানোর আগেই রাস্তাতেই সব হারাতে হলো তাকে। তখন অসহায়ের মতো আর্তনাদ করা ছাড়া তার জন্য আর কিছুই বাকি রইল না।

ক্ষতিগ্রস্ত শাহিন জানান, দরিদ্র পরিবারে জন্ম হওয়ায় পরিবারের হাসি ফোটানোর জন্য তার বাবা ধারদেনা করে ২০১৮ সালে সেপ্টেম্বরে তাকে বিদেশ পাঠায়। প্রায় তিন বছর প্রবাসজীবনের ছুটি নিয়ে বৃহস্পতিবার দেশে আসেন। ঢাকার বিমানবন্দর থেকে গাড়ি ভাড়া করে বাড়ি ফিরছিলেন। ওইদিন ভোরে সোনারগাঁয়ের মুগড়াপাড়া পৌঁছলে ডাকাতের কবলে পড়েন। তাতে ডাকাতেরা তার ভিসাযুক্ত পাসপোর্ট, আপডাউন টিকেট, দুটি লাগেজ ভর্তি মালামাল, নগদ ৫৭ হাজার টাকা, দুটি আইফোন, স্বর্ণালংকার, নগদ ২৫০ সৌদি রিয়ালসহ সর্বস্ব নিয়ে যায়। সর্বস্ব হারিয়ে রাস্তায় গড়াগড়ি কান্নাকাটি করলেও কেউ এগিয়ে আসেনি।

শাহিন দাগনভূঞার পৌরসভাধীন আলাইয়ারপুর গ্রামের সিএনজিচালক লোকমান হোসেনের ছেলে। তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে শাহিন ছোট। শাহিনের জন্য বিয়ের পাত্রী ঠিক করা হয়েছিল। সেই বিয়ে উপলক্ষে হবু স্ত্রীর জন্য গহনা, নতুন জামাকাপড় নিয়ে এসেছিলেন।

শুক্রবার পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (মিডিয়া) সোহেল রানা বলেন, প্রবাসী ওই যুবকের সবকিছু লুটের ঘটনার পর যেসব ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখা গেছে, সেসব ছবির সূত্র ধরে জড়িতদের খুঁজে বের করার জন্য স্থানীয় পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে, খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দুষ্কৃতকারীদের গ্রেপ্তারে সক্ষম হবে পুলিশ।

সোনারগাঁও থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান, শাহিনকে তার ভিসাযুক্ত পাসপোর্টসহ মালামাল উদ্ধার ও ডাকাতদলের সদস্যদের গ্রেপ্তারে সাঁড়াশি অভিযান চলছে। আশা রাখছি সফল অভিযানে সুখবর দিতে পারবো।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই তপন কুমার বাকশী জানান, ভিকটিমের অভিযোগ নেয়া হচ্ছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তার ভিসাযুক্ত পাসপোর্ট উদ্ধারে এবং লুটেরাদের গ্রেপ্তারে সাঁড়াশি অভিযান চলছে।

শাহিনের বাবা লোকমান হোসেন ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, আমার সব স্বপ্ন তাসের ঘরের মতো উড়ে গেল। আমার দাবি, শাহিনের গাড়ি থেকে লুটে নেয়া সব অর্থ ও মালামাল উদ্ধার এবং ডাকাত কিংবা ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তার করা হোক।

দাগনভূঞা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, ‘শাহিনের বাড়ি দাগনভূঞাতে হলেও ঘটনাস্থল সোনারগাঁও হওয়ায় সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। আমিও সর্বস্বহারা শাহিনের পাশে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতিতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। সার্বক্ষণিক সোনারগাঁও থানার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি।

(ঢাকাটাইমস/১৩জুন/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :