হাসানুজ্জামানের ঝড়ো সেঞ্চুরিতেও পারটেক্সের হার

ক্রীড়া প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ জুন ২০২১, ১৬:১২ | প্রকাশিত : ২১ জুন ২০২১, ১৬:০৭

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের(ডিপিএল) রেলিগেশনপর্বে ওল্ড ডিওএইচএসের বিপক্ষে দলীয় ওপেনার এবং অধিনায়ক মোহাম্মদ হাসানুজ্জামানের ঝড়ো সেঞ্চুরির পরও ২৩ রানে হেরেছে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব। এ জয়ের মাধ্যমে লিগে টিকে থাকার স্বপ্ন এখনো বাঁচিয়ে রাখল ডিওএইচএস।

ম্যাচের শুরুতে ব্যাট করতে নেমে চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের ভিত্তিটা গড়ে দেন ডিওএইচএসের দুই ওপেনার আনিসুল হক ইমন এবং রাকিন আহমেদ। উদ্বোধনী জুটিতে মাত্র ৬.২ ওভারে দুজন মিলে করেন ৬০ রান। ২৩ বলে ৩৪ রানে ফেরেন ইমন। পরের উইকেটে ব্যাট করতে নেমে মাহমুদুল হাসান জয় আউট হন ব্যক্তিগত ৫ রানে।

এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি মোহাইমিনুল খানদের। তৃতীয় উইকেটে জুটিতে ওপেনার রাকিনের সঙ্গে মাত্র ৭২ বলে ১৩১ রানের জুটি গড়েন দলনেতা। আর তাতেই টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ দলীয় রান সংগ্রহ করে ডিওএইচএস। নির্ধারিত ২০ ওভারে তাদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৯৯ রান।

৮ রানের আক্ষেপ থেকে যায় রাকিনের। ৫৮ বলে ৯২ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। এদিকে ৩৫ বলে ৫০ রানে মাঠ ছাড়েন মোহাইমিনুল।

ফলে ২০০ রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি পারটেক্সের। দলীয় ওপেনার সায়েম আলম শূন্যরানে ফেরার পর রানের খাতা খুলতে পারেননি দ্বিতীয় উইকেটে ব্যাট করতে আসা জনি তালুকদারও।

তবে তৃতীয় উইকেট জুটিতে আহমেদ মুসাকে সঙ্গে নিয়ে জয়ের স্বপ্নই দেখাচ্ছিলেন অধিনায়ক হাসানুজ্জামান। এ সময় দুজন মিলে গড়েন ১০০ রানের জুটি। যেখানে হাসানুজ্জামানের অবদানই ৬৯ রান।

ব্যক্তিগত ৩১ রানে মুসা আউট হওয়ার পর ৫০ বলে ব্যক্তিগত সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন দলনেতা। শেষ পর্যন্ত ৫২ বলে করেন ১০৫ রান। তার ইনিংসটি ১১টি চার এবং ৭টি ছয়ে সাজানো।

এ দুই ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার পর নড়বড়ে হয়ে যায় পারটেক্সের ব্যাটিং লাইনআপ। পরবর্তীতে ব্যাটসম্যানরা নেমেছেন ঠিকই কিন্তু জয়ের ক্ষেত্রে কোনোই অবদান রাখতে পারেননি। ফলে ২০ ওভারে ৮ উইকেটে তাদের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ১৭৬ রান।

(ঢাকাটাইমস/২১জুন/এমএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত