দুদকের মামলায় ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৩

কুষ্টিয়া দৌলতপুর থানার প্রতারণা করে ব্যাংকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে দুদক কুষ্টিয়া কর্তৃক ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দৌলতপুর থানায় করা মামলায় পাঁচ বছর কারাদণ্ড ও ১০ লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ বিশেষ আদালতের বিচারক আশরাফুল ইসলামের আদালত সাজাপ্রাপ্ত ওই ব্যাংক কর্মকর্তার উপস্থিতিতে এই আদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত মো: হাফিজুর রহমান (৫৫) দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনিয়া কৈপাল গ্রামের বাসিন্দা মৃত আজগার আলীর ছেলে। তিনি বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক মূখ্য আঞ্চলিক কার্যালয় কুষ্টিয়াতে ব্যাংক পরিদর্শক পদে কর্মরত ছিলেন।

আদালতের মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০০৮ সালের ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৩ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি সময়কালে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক দৌলতপুর উপজেলার ডাংমরকা শাখায় কর্মরত ছিলেন। ওই সময় ভুয়া নাম-ঠিকানার ব্যক্তির নামে ঋণ ফাইল তৈরি করেন এবং সেটি অনুমোদন করে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করেন। পরবর্তীতে কিস্তি আদায়সহ আদায়কৃত ব্যাংকের টাকা নির্ধারিত হিসাবের অনুকূলে জমা না দিয়ে আত্মসাত করেন ব্যাংক পরিদর্শক মো. হাফিজুর রহমান।

এমন অভিযোগ পেয়ে ২০১৬ সালের ২২ নভেম্বর সমন্বিত দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কুষ্টিয়া কার্যালয়ের তৎকালীন উপ-পরিচালক আব্দুল গাফফার বাদি হয়ে দৌলতপুর থানায় মামলা করেন।

মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৪ জুন আসামির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগে প্রায় সাড়ে নয় লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ প্রাথমিক সত্যতার ভিত্তিতে আদালতে চার্যশিট দেন দুদক কর্মকর্তা।

জেলা ও দায়রা জজ বিশেষ আদালতে সমন্বিত দুর্নীতি দমন কমিশন দুদক কুষ্টিয়ার কৌশুলী এ্যাড. আল-মুজাহিদ হোসেন মিঠু জানান, আসামি হাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে দাখিলকৃত তদন্ত প্রতিবেদনে বিজ্ঞ আদালত দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানি শেষে আসামির বিরুদ্ধে আনীত অর্থ আত্মসাতে জড়িত থাকার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে তিনটি ধারায় যথাক্রমে পাঁচ বছর, তিন বছর এবং পাঁচ বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডসহ ১০ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আসামির বিরুদ্ধে ধার্যকৃত সাজা একযোগে প্রযোজ্য হবে। তার মানে আসামি জরিমানার টাকা না দিলে সবমিলিয়ে আসামিকে সাজা ভোগ করতে হবে ছয় বছর।

(ঢাকাটাইমস/২৮অক্টোবর/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :