ছিনতাই মামলায় ১০ বছর কারাভোগের পর ফের ছিনতাই

নিজস্ব প্রতিনিধি, ফেনী
| আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৪৪ | প্রকাশিত : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৫৬

ছিনতাইয়ের মামলায় ১০ বছর কারাভোগ করেছিলেন ফেনীর ছাগলনাইয়া পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড বাঁশপাড়া এলাকার বাসিন্দা আলী হোসেন। কিছুদিন আগে কারাগার থেকে সহযোগীদের নিয়ে পুরোনো পেশায় নেমে পড়েন।

গত মঙ্গলবার দুপুরে জেলার দাগনভূঞা উপজেলার বেকের বাজারে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে বাড়ি ফেরার পথে গৃহবধূ ফরিদা আক্তারের কাছ থেকে ৩৫ হাজার টাকা ছিনতাই করে সংঘবদ্ধ চক্র। এ ঘটনায় জড়িত তিনজনকে শুক্রবার রাতে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

তাদের মধ্যে আলী হোসেন ছাড়াও ইমাম হোসেন ও রাকিব হোসেন নামে আরো দুজন রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে বেকের বাজারের জনতা ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে বাড়ির দিকে রওনা হন উত্তর আলীপুর এলাকার জানা মিয়ার বাড়ির প্রবাসী মনছুর আহম্মদের স্ত্রী ফরিদা আক্তার স্বপ্না। সিএনজি অটোরিকশাযোগে বাড়ি যাওয়ার সময় পথে বেকের বাজারের উত্তর পাশে পাকা সড়কের মাথায় ছিনতাইকারীরা গাড়ির গতিরোধ করে।

এসময় কিছু বুঝে উঠার আগেই স্বপ্নাকে মারধর করে ব্যাগে থাকা টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। গৃহবধূর চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

পুলিশ সূত্র জানায়, ঘটনার পর থেকে ছিনতাইকারীদের ধরতে পুলিশের বেশ কয়েকটি টিম অভিযানে নামে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত সিএনজি অটোরিকশা শনাক্ত করা হয়। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তাদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে শুক্রবার রাতে ছাগলনাইয়ার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ।

এসময় আলী হোসেন (৩১) ছাড়াও মটুয়া এলাকার মৃত রহিম উল্যাহর ছেলে ইমাম হোসেন (২৬) ও রাধানগর ইউনিয়নের উত্তর আঁধারমানিক এলাকার ফিরোজ মিয়ার ছেলে (১৯) কে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে ৩০ হাজার ৫শ টাকা, ১টি মোবাইল ফোন ও ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত সিএনজি অটোরিকশা জব্দ করা হয়। আলী হোসেন এর আগে ছিনতাইয়ের মামলায় ১০ বছর কারাভোগ করেছিলেন।

দাগনভূঞা থানার ওসি হাসান ইমাম ঢাকা টাইমসকে জানান, ছিনতাইকারীদের ধরতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নামে। জড়িত তিন জনকেই গ্রেপ্তার, লুণ্ঠিত টাকা ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের শনিবার আদালতে প্রেরণ করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/২৪সেপ্টেম্বর/এসএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :