`নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা ছিল রাজশাহীর পূজামণ্ডপগুলো‘

শাহরিয়ার অনতু, রাজশাহী
 | প্রকাশিত : ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১৯:৩১

রাজশাহীতে সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা বুধবার রাতে শেষ হয়েছে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে। তবে কোন ধরনের অপৃতিকর ঘটনা ছাড়াই দুর্গাপূজা সম্পন্ন হওয়ায় বেশ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ।

এ বছর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষ তৎপরতায় কোন ধরনের নাশকতা ছাড়া সম্পন্ন হয়েছে শারদীয় দুর্গাপূজা।

পূর্জা শুরু হওয়ার আগেই আরএমপির পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক ও হিন্দু সম্প্রদারের নেতৃবৃন্দ মধ্যে কয়েক দফা আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফলে উৎসবমূখর পরিবেশে পূর্জা মণ্ডপগুলো ছিল নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা।

প্রতিটি পূর্জামণ্ডপে বসানো হয়েছিল অতিরিক্ত সিসি ক্যামেরা। আর সার্বক্ষণিক পুলিশ ও আনসার সদস্যরা দায়িত্ব পালন করেন।

বৃহহস্পতিবার বিকালে আরএমপির পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিকের সাথে একান্ত আলাপচারিতায় তিনি এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

এসময় তিনি বলেন, তিনি যোগদানের পর শহরের অপরাধ নিয়ন্ত্রণে গঠন করেছিলেন সাইবার ইউনিট। আর শহরের প্রতিটি প্রধান প্রধান সড়কে বসিয়েছিলেন সিসি ক্যামেরা। ফলে পুরো শহর সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসা হয়।

এছাড়াও তিনি আরএমপির ১২টি থানার পূর্জামণ্ডপ পরিদর্শন করেছেন প্রতিনিয়ত। কুশল বিনিময় করেছেন পূর্জা উদযাপন কমিটির লোকজনের সাথে। এ বছর মহানগরীতে মোট ৭৬টি ও জেলায় প্রায় ৪০০টি পূর্জামণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিমা বিসর্জনের সময় নদীর ঘাটগুলোতে দেয়া হয়েছিল পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তিনি নিজেও প্রতিমা বিসর্জন শুরু হওয়ার পর থেকেই মহানগরীর মুন্নুজান, পঞ্চবটি, আলুপট্টি, ফুদকিপাড়া ও বড়কুঠি ঘাট পরিদর্শন করেন।

(ঢাকাটাইমস/০৬অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :