রাশিয়ার সীমান্তবর্তী বেলগোরোদ অঞ্চলে গোলাবর্ষণে দুজন নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০২ জুন ২০২৩, ১৯:০৬ | প্রকাশিত : ০২ জুন ২০২৩, ১৮:২০

ইউক্রেন সীমান্তবর্তী রাশিয়ার শহর বেলগোরোদে শুক্রবার গোলাবর্ষণে দু’জন নিহত এবং দু’জন আহত হয়েছে। অঞ্চলের গভর্নর বলেছেন বলেছেন, কাছাকাছি অঞ্চলের কর্মকর্তারা রাতভর ড্রোন হামলার কথা জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের।

গভর্নর ব্যাচেস্লাভ গ্ল্যাডকভ টেলিগ্রামে লিখেছেন, ইউক্রেনের উত্তর খারকিভ অঞ্চল থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে মাসলোভা প্রিস্তান শহরের রাস্তার একটি অংশে গোলা আঘাত হেনেছে এবং সেই শেলটির টুকরোগুলো পাশ দিয়ে যাওয়া গাড়িতে আঘাত করেছে। তাদের একটিতে দুই মহিলা যাচ্ছিলেন। আহত হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।

বেলগোরোদের উত্তরে ব্রায়ানস্ক অঞ্চলের গভর্নর বলেছেন, গোলাগুলিতে চারটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অন্যদিকে প্রতিবেশী কুরস্ক অঞ্চলের প্রধান বলেছেন, রাতারাতি ড্রোন হামলায় কিছু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

দূরপাল্লার ড্রোনগুলিও রাতারাতি স্মোলেনস্ক অঞ্চলের দুটি শহরে আঘাত করেছিল বলে সেখানকার স্থানীয় গভর্নর বলেছেন। রাশিয়ার কালুগা অঞ্চলের প্রধান জানিয়েছেন, একটি বনে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে।

রাশিয়ার কর্মকর্তারা সাম্প্রতিক দিনগুলিতে উত্তর ইউক্রেন থেকে তীব্র আক্রমণের কথা জানিয়েছেন। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে তার বাহিনী বৃহস্পতিবার বেলগোরোদ অঞ্চলে ইউক্রেনের ‘সন্ত্রাসী গঠন’ বলে তিনটি আন্তঃসীমান্ত আক্রমণ প্রতিহত করেছে।

অনুপ্রবেশের সঙ্গে সেনাবাহিনীর জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করে ইউক্রেন জানিয়েছে, হামলাগুলো রুশ স্বেচ্ছাসেবক যোদ্ধাদের মাধ্যমে পরিচালিত।

গ্ল্যাডকভ শুক্রবার বলেছিলেন, শেবেকিনো জেলায় রাতারাতি কমপক্ষে একটি গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে এবং ২৫০০ জনের বেশি লোককে এলাকা থেকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষ শুক্রবার দেশের বেশিরভাগ অংশ জুড়ে বিমান হামলার সতর্কতা তুলে নিয়েছে এবং রাজধানী কিয়েভের কর্মকর্তারা বলেছেন, প্রতিরক্ষা বাহিনী রাশিয়ার ছোড়া ৩০টির বেশি ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন গুলি করেছে।

মস্কো মে মাসের শুরু থেকে ইউক্রেনের শহরগুলিতে প্রায় ২০টি পৃথক ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন হামলা চালিয়েছে।

রাশিয়া বেসামরিক লোকদের লক্ষ্যবস্তু বা যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ অস্বীকার করে তবে তার বাহিনী ইউক্রেনের শহরগুলি ধ্বংস করেছে এবং বারবার আবাসিক এলাকায় আঘাত করেছে।

রাশিয়া ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন আক্রমণ করেছিল যাকে রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন একটি ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ বলে অভিহিত করেছিলেন। তিনি বলেন দেশটিকে ‘অস্বীকৃত’ করতে, রুশ ভাষাভাষীদের রক্ষা করতে এবং তার সীমানাকে তিনি যা বলেছিলেন আক্রমনাত্মক পশ্চিমা উচ্চাকাঙ্ক্ষা থেকে রক্ষা করতে তিনি এই সামরিক অভিযান পরিচালনা করেছেন।

কিয়েভ এবং তার পশ্চিমা মিত্ররা পুতিনের বিরুদ্ধে বর্বর কৌশল এবং ইউক্রেনে সাম্রাজ্যবাদী ধাঁচের জমি দখলের অভিযোগ এনেছে। যুদ্ধের ফলে হাজার হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে এবং লক্ষ লক্ষ বিদেশে পালিয়ে গেছে।

(ঢাকাটাইমস/২জুন/এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

ভারতে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষ, শীর্ষনেতাসহ ২৯ মাওবাদী নিহত

ইরানের হামলার প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রয়োজন নেই: সাবেক ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

ভারতের কাশ্মীরে নৌকাডুবে ৬ জনের প্রাণহানি, নিখোঁজ ১৫

ইসরায়েলে হামলার পর পরমাণু স্থাপনা সাময়িক বন্ধ করে ইরান

২০ বছর পর নতুন প্রধানমন্ত্রী পাচ্ছে সিঙ্গাপুর

ইসরায়েলের পাল্টা হামলার ঘোষণায় উদ্বিগ্ন ইরানিরা

সাইপ্রাসে পুলিশি অভিযানে পাঁচতলা ভবন থেকে ঝাঁপ দিয়ে বাংলাদেশি নিহত 

পাকিস্তানে ভারী বষর্ণ ও বজ্রপাতে নিহত ৩৯

ইরানে সম্ভাব্য হামলার প্রস্তুতি চূড়ান্ত করল ইসরায়েলি বিমান বাহিনী

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ঠেকাতে পারেনি ইসরায়েল ও তার মিত্ররা

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :