ভালো শুরু করেও শেষে খেই হারালো বাংলাদেশ, ৯ উইকেটে সংগ্রহ ৩১০

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২৩, ১৭:১৯ | প্রকাশিত : ২৮ নভেম্বর ২০২৩, ১৭:১০

কথায় বলে শেষ ভালো যার, সব ভালো তার। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে কথাটা আজ মিলে গেলো কাটায় কাটায়। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করলেও শেষের দিকে ব্যাটারদের আসা যাওয়ার মিছিলে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩১০ রান তুলতে পেরেছে বাংলাদেশ। আলো স্বল্পতার কারণে ৮৫ ওভার শেষে প্রথম দিনের খেলার সমাপ্তি ঘোষণা করেন আম্পায়াররা।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে কিউইদের বিপক্ষে আজ টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৯ রানে প্রথম উইকেট হারালেও ২৭ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১০৪ রান করে প্রথম সেশনটা নিজেদের করে নেয় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় সেশনটাও ভালোই শুরু করে বাংলাদেশ। তবে পর পর দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে টাইগাররা। তারপরও ১৮৪ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে দ্বিতীয় সেশন শেষ করে তারা। কিন্তু তৃতীয় সেশনে এসে খেই হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। তৃতীয় সেশনে ৫ উইকেট হারিয়ে বসে টাইগাররা। ব্যাটাররা একের পর এক বিলিয়ে দিয়ে আসেন উইকেট। ২৯০ রানেই ৯ উইকেট হারায় তারা। দশম উইকেট জুটিতে শরিফুল-তাইজুলের ২০ রানে ভর করে ৩১০ রানে প্রথম দিন শেষ করে টাইগাররা।

বাংলাদেশের হয়ে আজ ওপেনিংয়ে নামেন মাহমুদুল হাসান জয় ও জাকির হাসান। শুরু থেকেই এই দুই ওপেনার দেখেশুনে খেলতে থাকেন। ১২ ওভারে নেন ৩৪ রান।

কিন্তু এর পরের ওভারেই ঘটে ছন্দপতন। ৪১ বলে ১২ রান করা জাকির হাসান এজাজ প্যাটেলের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরে গেলে ভেঙে যায় এই জুটি। তার বিদায়ে ৩৯ রানেই প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

জাকির হাসানের বিদায়ের পর ক্রিজে আসেন অধিনায়ক নাজমুল হাসান শান্ত। শুরু থেকেই তিনি কিউই বোলারদের ওপর চড়াও হতে থাকেন। টেস্ট ম্যাচ যে ধৈর্যের খেলা তা হয়তো ভুলেই গিয়েছিলেন তিনি। তার সঙ্গে জুটি বাঁধা আরেক ব্যাটার মাহমুদুল হাসান জয় ধীরেসুস্থে খেলতে থাকলেও শান্ত খেলতে থাকেন চড়াও হয়ে।

চড়াও হয়ে খেলতে থাকলেও নিজের ইনিংসকে বেশিদূর নিয়ে যেতে পারেননি তিনি। ৩৫ বলে ৩৭ রান করে গ্লেন ফিলিপসের বলে কেন উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরে যান সাজঘরে। তার বিদায়ে ৯২ রানে ২ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

শান্তর বিদায়ের পর মুমিনুল হককে নিয়ে জুটি গড়েন মাহমুদুল হাসান জয়। এই জুটিতে ভর করে ২৭ ওভারে দলীয় শতক পূর্ণ করে বাংলাদেশ। ২৭ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ১০৪ রান করে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়ার আগে ক্রিজে অপরাজিত থাকেন মুমিনুল হক (৩) এবং মাহমুদুল হাসান জয় (৪২)।

মধ্যাহ্ন বিরতি থেকে ফিরে কিউইদের বিপক্ষে অর্ধশতক তুলে নেন মাহমুদুল হাসান জয়। আজ তিনি ৯৩ বলে তুলে নেন অর্ধশতক।

জয়ের পর মুমিনুল হকও এগিয়ে যাচ্ছিলেন অর্ধশতকের দিকে। কিন্তু ৭৮ বলে ৩৭ রান করে গ্লেন ফিলিপসের বলে টম ব্লান্ডেলের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরে যান সাজঘরে।

তার পথ ধরে ফিরে যান সেঞ্চুরির আশা জাগানো মাহমুদুল হাসান জয়ও। অর্ধশতক তুলে নেওয়ার পর তিনি ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছিলেন সেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু মাত্র ১৪ রানের জন্য আজ তিন বঞ্চিত হন সেঞ্চুরি থেকে। নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরির মাইলফলকের দ্বারপ্রান্তে ছিলেন তিনি। কিন্তু ১০৬ বলে ৮৬ রান করে টিম সাউদির শিকার হয়ে পথ ধরেন প্যাভিলিয়নের।

মুমিনুল ও জয়ের বিদায়ের পর মুশফিক ও আজকের ম্যাচে অভিষেক হওয়া শাহাদাত হোসেন দিপু জুটি গড়েন। এরপর ৫৫ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রান করে চা পানের বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

বিরতি থেকে ফিরে নিজেদের জুটিকে আর বেশদূর নিয়ে যেতে পারেননি মুশফিক ও দিপু। দলীয় ২১০ রানে মুশফিকের বিদায়ে ভেঙে যায় এই জুটি।

অভিজ্ঞ মুশফিক আজ বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন নিজের উইকেট। এজাজ প্যাটেলকে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে মারতে গিয়ে মিড অফে দাঁড়ানো উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরে যান সাজঘরে। আউট হওয়ার আগে করেন ২২ বলে ১২ রান।

অভিজ্ঞ মুশফিকের বিদায়ের পর মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে জুটি গড়েন শাহাদাত হোসেন দিপু। এই জুটিতে ভর করে বড় সংগ্রহের দিকে এগোচ্ছিল টাইগাররা, কিন্তু এই জুটিও বেশিদূর এগোতে পারেনি।

মুশফিকের পর নিজের উইকেট বিলিয়ে দেন মেহেদী হাসান মিরাজও। কাইল জেমিসনের বলে স্লিপে ড্যারেল মিচেলকে ক্যাচ প্রাক্টিস করিয়ে পথ ধরেন প্যাভিলিয়নের।

মিরাজের বিদায়ের পর ফিরে যান শাহাদাত হোসেন দিপুও। মুশফিক আর মিরাজের পথ ধরে তিনিও বিলিয়ে দিয়ে আসেন নিজের উইকেট। গ্লেন ফিলিপসের বলে শর্ট মিডউইকেটে হেনরি নিকোলসের হাতে সহজ এক ক্যাচ তুলে দিয়ে ফিরে যান সাজঘরে।

দিপুর পর সাজঘরের পথ ধরেন নুরুল হাসান সোহান ও নাঈম হাসান। এই দুই ব্যাটারের বিদায়ে ২৯০ রানে ৯ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। নুরুল হাসান সোহান সাজঘরে ফিরেন ২৮ বলে ২৯ রান করে। আর নাঈম হাসান করেন ২৭ বলে ১৭ রান।

এরপর দশম উইকেটে জুটি গড়েন শরিফুল ও তাইজুল। তাদের অবিচ্ছিন্ন ২০ রানে ভর করে প্রথম দিন শেষে ৩১০ রান তুলতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের হয়ে গ্লেন ফিলিপস ৪ টি, কাইল জেমিসন ২ টি, এজাজ প্যাটেল ২ টি ও ইস সোধি ১ টি উইকেট নেন।

(ঢাকাটাইমস/২৮ নভেম্বর/এনবিডব্লিউ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

খেলাধুলা এর সর্বশেষ

টাইগারদের বোলিং কোচ অ্যাডামস, ব্যাটিং কোচ হ্যাম্প

দ্রুততম সেঞ্চুরির বিশ্বরেকর্ড গড়লেন নামিবিয়ান ব্যাটার

এক সেঞ্চুরিতে প্রায় কোটি রুপির গাড়ি উপহার পেলেন বাবর আজম

ফাইনালের আগে বড় সুখবর পেল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের চূড়ান্ত সূচি প্রকাশ বিসিবির

পাপনের জন্য অটোগ্রাফসহ জার্সি পাঠিয়েছেন বিশ্বকাপজয়ী ডি মারিয়া

একাদশে মিলবে না সুযোগ, কান্নাভেজা চোখে অবসরের ঘোষণা কিউই পেসারের

‘মেসি, মেসি’ স্লোগান শুনে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি, শাস্তির শঙ্কায় এবার রোনালদো

মিরপুরে শান্তদের নিয়ে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের রুদ্ধদ্বার অনুশীলন

বিপিএল: ফাইনালে কুমিল্লা, দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে মুখোমুখি সাকিব-তামিম

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :