মস্কোতে রুশপন্থি সাবেক ইউক্রেনীয় এমপিকে গুলি করে হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ১২:৪৮

ইউক্রেনের সাবেক সংসদ সদস্য ইলিয়া কিভাকে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর কাছে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে ইউক্রেন।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইলিয়া কিভাকে ইউক্রেন দেশদ্রোহী বলে ঘোষণা করেছিল এবং বুধবার তাকে মস্কোর দক্ষিণ-পশ্চিমে ওডিনসোভো অঞ্চলের একটি পার্কে গুলি করে হত্যা করা হয়।

রাশিয়ান তদন্তকারীরা বলেছেন, তারা এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে এবং হামলায় জড়িত সন্দেহভাজন ব্যক্তির খোঁজে অভিযান শুরু করেছে।

রুশ তদন্ত কমিটি এক বিবৃতিতে বলেছে, অজ্ঞাত এক ব্যক্তি একটি অজ্ঞাত অস্ত্র থেকে নিহত ইলিয়া কিভার ওপর গুলিবর্ষণ করে। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান কিভা।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স এবং এএফপি বেশ কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ইউক্রেনের সিকিউরিটি সার্ভিস (এসবিইউ) ইলিয়া কিভাকে হত্যা করেছে।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে মস্কো আক্রমণ করার আগে কিভা ইউক্রেনের পার্লামেন্টের সদস্য ছিলেন। কিন্তু যুদ্ধের পুরো সময়জুড়ে তিনি রাশিয়ায় ছিলেন এবং প্রায়শই তিনি অনলাইনে ইউক্রেনীয় কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করতেন।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করার আগের দিন কিভা বলেছিলেন, ইউক্রেন ‘নাৎসিবাদে সিক্ত’ এবং এই দেশটিকে রাশিয়ার মাধ্যমে ‘মুক্ত’ করা প্রয়োজন। পরে রাষ্ট্রদ্রোহ ও সহিংসতায় উসকানিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ইউক্রেনের একটি আদালত তার অনুপস্থিতিতেই তাকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করে।

এদিকে ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা মুখপাত্র আন্দ্রি ইউসভ বলেছেন, ‘আমরা নিশ্চিত করতে পারি যে, কিভাকে হত্যা করা হয়েছে। ইউক্রেনের অন্যান্য বিশ্বাসঘাতকদের পাশাপাশি (রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির) পুতিনের শাসনের দোসরদের এই ধরনের পরিণতি হবে।’ তবে হত্যাকাণ্ডের পেছনে কারা জড়িত তা জানাননি ইউসভ।

অন্যদিকে পৃথক ঘটনায় বুধবার গাড়ি বোমা হামলায় ইউক্রেনের পূর্ব লুহানস্ক অঞ্চলের এক মস্কোপন্থি আইনপ্রণেতা নিহত হয়েছেন বলে রাশিয়ান তদন্তকারীরা জানিয়েছেন। ওলেগ পপভ নামের ওই মস্কোপন্থি আইনপ্রণেতা লুহানস্ক আঞ্চলিক সংসদে ডেপুটি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

প্রসঙ্গত, রাশিয়ার অভ্যন্তরে এবং রাশিয়ান বাহিনীর দখলকৃত ইউক্রেনের কিছু অংশে রাশিয়াপন্থী ব্যক্তিদের হত্যার পিছনে জড়িত থাকার বিষয়ে খুব কমই মন্তব্য করেছে কিয়েভ। কিন্তু সম্প্রতি বেশ কয়েকটি হামলার দায় স্বীকার করেছে কিয়েভ এবং প্রকাশ্যে অন্যান্য ‘রাশিয়ার সহযোগী’ এবং ‘বিশ্বাসঘাতকদের’ হত্যা করার হুমকি দিয়েছে।

এর আগে রাশিয়ার অভ্যন্তরে বেশ কয়েকটি হত্যাকাণ্ডের জন্য ইউক্রেনকে দায়ী করেছিল মস্কো।

২০২২ সালের আগস্টে, রাশিয়ান জাতীয়তাবাদী দারিয়া দুগিনা মস্কোর কাছে একটি গাড়ি বোমা হামলায় নিহত হন, এছাড়ও গত এপ্রিলে সেন্ট পিটার্সবার্গের একটি ক্যাফেতে বিস্ফোরণে রাশিয়ান সামরিক ব্লগার ভ্লাদলেন তাতারস্কি নিহত হন।

মার্কিন গোয়েন্দা এবং মিডিয়া রিপোর্টগুলো এসব হামলার পেছনে কিয়েভকে দায়ী করলেও ইউক্রেন প্রকাশ্যে এই হামলার দায় স্বীকার করেনি।

(ঢাকাটাইমস/০৭ডিসেম্বর/এমআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

কানাডা-যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতদের হুমকি দেওয়া হয়: জয়শঙ্কর

হার্ট অ্যাটাকে স্বামীর মৃত্যু, ভবন থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করেন স্ত্রী

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় প্রাণহানি ৩০ হাজার ছুঁইছুঁই

রাশিয়ায় অস্ত্রবোঝাই ৬৭০০ কনটেইনার পাঠিয়েছে উত্তর কোরিয়া, দাবি দ. কোরিয়ার

পাকিস্তানের প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী কে এই মরিয়ম?

‘মৃত্যুর অপেক্ষা করছি’, স্বামী হারিয়ে সন্তানদের নিয়ে ঘরবন্দি স্ত্রী!

বুরকিনা ফাসোতে নামাজের সময় মসজিদে হামলা, নিহত বহু

নীল নদে নৌকাডুবি, ১০ শ্রমিকের মৃত্যু

ইসরায়েলি দূতাবাসের সামনে শরীরে আগুন দেয়া মার্কিন বিমান সেনার মৃত্যু

আইসক্রিম খেতে খেতে বাইডেন বললেন ‘সোমবারের মধ্যে গাজায় যুদ্ধবিরতি’

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :