দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন শুরু হয়নি দেড় মাসেও

জাফর আহমেদ, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ০১ মার্চ ২০২৪, ০৮:১৩ | প্রকাশিত : ০১ মার্চ ২০২৪, ০৮:১১

অসাধু ব্যবসায়ী ও মজুদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ও দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করে মানুষের নাগালে রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বারবার নির্দেশনা দিলেও এখনো পর্যন্ত পদক্ষেপ নেয়নি বাজারের সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলো। পুরোনো অনিয়মেই চলছে মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা বলছেন, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে মন্ত্রণালয়গুলোর অভিযান ও কার্যক্রম চলমান আছে। আগে যেভাবে বাজার মনিটরিং, অভিযান, নিয়ন্ত্রণ, অসাধু ব্যবসায়ী ও মজুতদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হতো এসব কাজ এখনো চলমান আছে। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে এখনো পর্যন্ত নতুন করে লিখিত নির্দেশ আসেনি। কৃষি, খাদ্য ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আগে যেসব কার্যক্রম ছিল সেই কার্যক্রমেই চলছে বাজার মনিটরিংসহ অন্যান্য কাজ। তবে রমজান উপলক্ষে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে তারা নজর রাখছে।

রমজানকে কেন্দ্র করে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে এই তিন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছে ঢাকা টাইমস। কর্মকর্তারা জানান, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে নতুন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। পুরোনো নিয়মের ধারাবাহিকতায় বাজারের সঙ্গে জড়িত মন্ত্রণালয়গুলো দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। সরকারের বিভিন্ন খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিও পুরোদমে চালু আছে। রমজান উপলক্ষে এসব কর্মসূচি আরও জোরদার করা হচ্ছে। এছাড়া ন্যায্যমূল্যে টিসিবি’র পণ্য বিক্রির কার্যক্রমও জোরদার করা হয়েছে।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন অনুবিভাগ) প্রদীপ কুমার দাস ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে খাদ্য মন্ত্রণালয় কি পদক্ষেপ নিয়েছে আমার জানা নেই। তবে নতুন করে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। আমার জানামতে, আগের যে পদক্ষেপ ও কার্যক্রম ছিল সেটাই চলছে। তবে এ বিষয়ে জানতে খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন।

এ বিষয়ে খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো.শাখাওয়াত হোসেনের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলে তার পিএ মুকুল বলেন, ‘স্যার মিটিংয়ে আছে, এখন দেওয়া সম্ভব না। স্যার আসলে ফোন দেব।’

কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন বিভাগ) ফারজানা মমতাজ ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে নতুন পদক্ষেপের বিষয়ে এখন নির্দিষ্ট করে বলা সম্ভব হচ্ছে না। কমন কিছু নির্দেশনা তো বরাবরই আছে। তবে স্পেসিফিক করে এই মুহূর্তে কিছু বলতে পারছি না। আমি একটা বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছি, এখন লিফটে আছি পরে কথা বলি, এই বলে তিনি ফোন কেটে দেন।’

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) মালেকা খায়রুন্নেছা ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে আমাদের পদক্ষেপ চলমান আছে। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের জন্য যেসব কার্যক্রম ছিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সেগুলো চলমান রেখেছে। এখনো পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। নতুন পদক্ষেপের বিষয়ে কোনো লিখিত নির্দেশনা আসেনি। মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে এসেছে কি না জানা নেই।’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের শেষে নতুন করে সরকার গঠনের পর দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ নিয়ে মাঠে কাজ করেছে আওয়ামী লীগ। এজন্য একের পর এক পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। বিভিন্ন অংশীজনের সঙ্গে কথা বলছে। একই সঙ্গে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য মন্ত্রণালয়গুলোকে নির্দেশনা দিয়ে কর ছাড়, শুল্ক ছাড়সহ নানামুখী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। কিন্তু এরপরও দ্রব্যমূল্যের লাগাম টেনে ধরতে পারেনি। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করাই সরকারের জন্য এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

গত ১৫ জানুয়ারি মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে মন্ত্রণালয়গুলোকে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে নির্দেশনা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ এবং নিত্যপণ্যের সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর ১৫ নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সব পৌরসভার মেয়র ও প্রশাসককে চিঠি পাঠিয়েছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

(ঢাকাটাইমস/০১মার্চ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিবেদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :