৬৮ দিনের আন্দোলন শেষে ক্লাসে ফিরছেন গবি শিক্ষার্থীরা

গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ জুন ২০১৯, ১৮:৪২

বৈধ উপাচার্য সংক্রান্ত জটিলতার সমাধান হওয়ায় দীর্ঘ ৬৮ দিনের আন্দোলন শেষে ক্লাসে ফেরার ঘোষণা দিয়েছেন সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের পক্ষে গবি ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক রনি আহমেদ ফেসবুক লাইভে এ ঘোষণা দেন।
বৃহস্পতিবার সকালে বিগত কয়েকদিনের ধারাবাহিকতায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে আবারো আলোচনায় বসে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি দল। এতে উপাচার্য নিয়োগ সংক্রান্ত সকল অগ্রগতি শিক্ষার্থীদের দেখানোর মাধ্যমে আশ্বস্ত করা হয়। শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি দল সকল কিছু পর্যবেক্ষণ শেষে দুপুরে ক্লাসে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত জানায়।

আলোচনায় প্রশাসনের পক্ষে রেজিস্ট্রার মো. দেলোয়ার হোসেন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মীর মুর্তজা আলী, সহকারী রেজিস্ট্রার আবু মোহাম্মদ মোকাম্মেল, অনুষদীয় ডিন এবং বিভিন্ন বিভাগীয় প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে গবি ছাত্র পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান রনি ঢাকাটাইমসকে বলেন, 'প্রশাসনের সাথে আজ অত্যন্ত ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। আমরা উপাচার্য নিয়োগের নিশ্চয়তা পেয়েছি। বলা চলে ৯৮% কাজ সম্পন্ন হয়েছে। উপাচার্য নিয়োগের ফাইল ইউজিসি থেকে স্বাক্ষর শেষে এখন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আছে। এরপর সেটা রাষ্ট্রপতির কাছে যাবে, এ প্রক্রিয়া শেষ হতে সর্বোচ্চ ২ মাস সময় লাগবে। দীর্ঘ এই আন্দোলনে সহযোগিতার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান এবং যাবতীয় ভুল ত্রুটি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।'

এছাড়া, গত ২৫ এপ্রিল আন্দোলনের কারণে অনুষ্ঠিত না হওয়া সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার জন্য আগামী ৪ জুলাই সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মাঝে সকল বিভাগের ক্লাস, মিডটার্ম পরীক্ষাসহ যাবতীয় সকল কার্যাদি সম্পন্ন করা হবে। এদিকে দুই মাসেরও অধিক সময় ধরে চলমান আন্দোলনে বিজয় লাভ করায় আগামী শনিবার ক্যাম্পাসে বিজয় উৎসবের ঘোষণা দিয়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, উপাচার্যের বৈধতা না থাকায় গত ৬ এপ্রিল থেকে ক্লাস, পরীক্ষা বন্ধ করে টানা আন্দোলন করে আসছিলেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় আন্দোলনকারীরা বিক্ষোভ মিছিল, রাজপথ অবরোধ, আমরণ অনশন, প্রধানমন্ত্রী বরাবর চিঠি, উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও, গণস্বাক্ষরসহ নানা কর্মসূচি পালন করেন।
ঢাকাটাইমস/১৩জুন/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :