মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা, শিক্ষককে গণধোলাই

নেত্রকোণা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৫ জুলাই ২০১৯, ১৭:৩৬

নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় দ্বিতীয় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা আবুল খায়ের বেলালীকে  গণধোলাইয়ের পর পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা।

শুক্রবার সকালে কেন্দুয়া পৌর শহরের বাদে আঠারবাড়ি এলাকায় মা হাওয়া (আ.) কওমি মহিলা মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে।

আটক শিক্ষক মাওলানা আবুল খায়ের বেলালী ওই মাদ্রাসার মোহতামিম (অধ্যক্ষ)। তিনি সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়নের সোণাকানী গ্রামের বাসিন্দা।

এদিকে, উপজেলার কান্দিউড়া ইউনিয়নের এই শিশু ছাত্রীটির বাবা নেই। মা চট্টগ্রামে গৃহকর্মীর কাজ করেন। ছাত্রীটি মাদ্রাসার ছাত্রী নিবাসে থেকে লেখাপড়া করে বলে জানান, কেন্দুয়া থানার ওসি রাশেদুজ্জামান।

ওসি জানান, শিক্ষক মাওলানা আবুল খায়ের দেড় মাস আগে মাদ্রাসাটিতে যোগ দেন। সকালে ছাত্রীটিকে খায়ের মাদ্রাসায় তার কক্ষে ডেকে আনেন। এসময় শিক্ষক খায়ের কোরআন শরিফ ছুঁয়ে মেয়েটিকে শপথ করায় যে, হাত-পা টিপে দেয়াসহ যা হবে তা কাউকেই বলতে পারবে না। পরে তার শরীরের হাত-পা টিপে দিতে বলেন। কিছু সময়ের মধ্যেই খায়ের শিশুটিকে ঝাপটে ধরে ধর্ষণ চেষ্টা চালান। এসময় শিশুটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন খায়েরকে আটক করে গণধোলাই দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। তাকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।  এ ঘটনায়  শিশুটির চাচা থানায় মামলা করেছেন।  

ওসি আরো জানান, তিন দিন আগে এই মাওলানা খায়ের মাদ্রাসাটির আরো এক ছাত্রীকে একই কায়দায় ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায়ও থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

(ঢাকাটাইমস/৫জুলাই/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :