‘করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ফান্ড করছে এফবিসিসিআই’

জহির রায়হান, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ৩০ মার্চ ২০২০, ২৩:৪০ | প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০২০, ২২:০৭

করোনাভাইরাসের প্রভাবে চলমান সংকটকালে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সহায়তার জন্য ‘ফান্ড’ গঠন করছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই)।

একই সঙ্গে করোনার প্রভাব ব্যবসা-বাণিজ্যসহ বিভিন্ন সেক্টরে কেমন প্রভাব পড়বে এবং সেখান থেকে কীভাবে উত্তরণ করা যাবে, তার জন্য অর্থনীতিবিদ ও বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করছেন সংগঠনের শীর্ষ নেতারা।

এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম গতকাল রবিবার ঢাকাটাইমসকে এ তথ্য জানান।

শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, ‘আমাদের জেলাভিত্তিক ব্যবসায়ীদের সংগঠন বা চেম্বার ও পণ্যভিত্তিক সমিতিগুলোকে এ ব্যাপারে জানিয়েছি। তারা যেন নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠীকে সহযোগিতা করে।

সুনামগঞ্জ চেম্বার ইতোমধ্যে অনেক মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করেছে জানিয়ে এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, ‘রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব) সহায়তার হাত বাড়িয়েছে। সব ক্ষুদ্র থেকে বড় পর‌্যায়ের সদস্যরা যার যেরকম অবস্থান সেভাবে সহযোগিতার হাত বাড়াচ্ছে। সবার সহোযোগিতায় এই কাজগুলো হচ্ছে।’

ব্যবসায়ীরা এই সংকটময় সময়ে সরকারের পাশে আছেন বলে জানান শেখ ফজলে ফাহিম। বলেন, ‘সরকারের একার পক্ষে এই সংকটে সব সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়।’

চিকিৎসকদের জন্য বিদেশ থেকে সুরক্ষা পোশাক আনছে এফবিসিসিআই। এ জন্য তারা একটি একটা ফান্ড গঠন করেছে। এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, ‘এর মাধ্যমে ডাক্তার-নার্সের জন্য এবং যারা ফ্রন্টলাইনে সার্ভিস দিচ্ছে তাদের জন্য প্রোটেক্টিভ গিয়ার আসছে। এগুলো আমরা কিনে ফেলেছি। এখন শিপমেন্টের জন্য অপেক্ষা করছি।’

ফজলে ফাহিম বলেন, ‘সরকারের সঙ্গে সমন্বয় করে আমরা চেষ্টা করছি, যেখানে যেটা প্রয়োজন সেটা করা।’

করোনা পরিস্থিতিতে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত ব্যবসায়ীদের ঋণখেলাপি ঘোষণা না করার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান এফবিসিসিআই সভাপতি। বলেন, খাদ্য ও স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য ট্রেড রিলেটেড যে সাপোর্টগুলো আমরা প্রয়োজন মনে করেছিলাম, ফেব্রয়ারি মাসে সেগুলো আমরা পাঠিয়েছি সরকারের বিভিন্ন সেক্টরে। আমরা অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। সেই আলোকে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে কিছু সিদ্ধান্ত এসেছে। যেমন, কিস্তির পেমেন্টে দিতে যদি দেরি হয় তাহলেও যেন ঋণখেলাপি না করা হয়। ক্লাসিফাইড না করা হয়।’

বর্তমান সংকটে ব্যবসায়ীদের জন্য দীর্ঘমেয়াদি ‘পে ব্যাক পলিসি’ করার প্রয়োজন বলে মনে করেন এফবিসিসিআই সভাপতি। তিনি বলেন, ‘আমাদের হয়তো ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল সাপোর্ট লাগবে। শ্রমিকদের বেতনসহ বিভিন্ন খরচের জন্য। এটা মাইক্রো, স্মল থেকে বড় সেক্টর সবগুলোতেই। সেখানে যেন জিরো সুদে অথবা স্বল্প সুদে দীর্ঘমেয়াদি পে ব্যাক পলিসি করে।’

করোনার প্রভাব ব্যবসা-বাণিজ্যসহ বিভিন্ন সেক্টরে কেমন প্রভাব পড়বে এবং সেখান থেকে কীভাবে উত্তরণ করা যাবে তার জন্য অর্থনিতীবিদসহ বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করা হচ্ছে জানিয়ে শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, ‘আমরা আমাদের সব চেম্বার, দেশের অর্থনিতীবিদ, ডেভেলপমেন্ট ফাইন্যান্সিং অরগানাইজেশন, বিশ্বব্যাংক, এডিপি তাদের সঙ্গে আলোচনা করছি। আমরা ওভারঅল একটা ইমপ্যাক্ট নিয়ে আলোচনা করছি। এখান থেকে আমাদের উত্তরনের রোডম্যাপটা কী হবে, সে ব্যাপারে কথা বলছি।’

(ঢাকাটাইমস/৩০মার্চ/জেআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সাক্ষাৎকার এর সর্বশেষ

শেখ হাসিনা আজ অনুকরণীয় বিশ্বনেতা: নানক

‘পরিবেশ যতই প্রতিকূল হোক শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবো’

‘ই-ওয়ার্ল্ড মার্কেটিং সামিটে আগামীর বাংলাদেশের এক নবদিগন্ত উন্মোচন হবে’

পদ্মা ব্যাংকের লক্ষ্য ব্রাঞ্চলেস ভার্চুয়াল ব্যাংকিং

মানুষ মশারি ছাড়া ঘুমায় শুনে নিজেকে গর্বিত লাগে

‘এমআরপি এবং ওয়ারেন্টি নীতি বাস্তবায়ন হলে প্রযুক্তি ব্যবসায়ে শৃঙ্খলা ফিরবে’

শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও ভোটের মাঠে থাকবো: সালাহউদ্দিন

‘আজন্ম মানুষের সেবা দেয়াই আমার অঙ্গীকার’ পর্ব-২

‘জনপ্রতিনিধি না জনগণের সেবক হিসেবে থাকতে চাই’ (পর্ব-১)

জননেত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করলে তৃণমূল সাজানো কঠিন হবে না

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :