হিজড়াদের পাশে ‘কেবল-টিভি দর্শক ফোরাম’ ও ‘সৃষ্টি হিউম্যান রাইটস’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০১ এপ্রিল ২০২০, ২০:১০

করোনাভাইরাস সংকটে আয়হীন হয়ে পড়া হিজড়া সম্প্রদায়ের একাংশের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে বাংলাদেশ কেবল টিভি দর্শক ফোরাম ও মানবাধিকার সংস্থা সৃষ্টি হিউম্যান রাইটস সোসাইটি নামের দুটি সংগঠন।

বুধবার সংগঠনটির সপ্তাহব্যাপী কার্যক্রমের অংশ হিসেবে রাজধানীর মিরপুর ১১, ১২, ১৩ ও ১৪ নম্বর এলাকার বসবাসকারী শতাধিক হিজড়ার মাঝে নগদ অর্থ তুলে দেন বাংলাদেশ কেবল টিভি ভিউয়ারস ফোরামের কেন্দ্রীয় মহাসচিব শাহাদাৎ হোসেন মুন্না। পাশাপাশি স্থানীয় বস্তি এলাকায় বসকারী দরিদ্র মানুষের মাঝে মাস্ক ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।

এ সময় প্রত্যেকের মাঝে পাঁচ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, তেল, দুই কেজি আলু ও সাবান বিতরণ করা হয়। সংক্রমণ প্রবণ এলাকাগুলোতে বিতরণ করা হয়েছে হ্যান্ড সেনিটাইজার।

শাহাদাৎ হোসেন মুন্না বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী এতোটাই স্পর্ষ্পকাতর যে, এ সমাজের কোনকিছুই তাঁকে উতরাতে পারেনি। অনেকে হয়তো ভুলেই গিয়েছিল তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের কথা। অথচ তিনি ভোলেননি। প্রধানমন্ত্রী ঠিকই তার ভাষণে এই সকল অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা কেবল টিভি দরশক ফোরাম ও সৃষ্টি হিউম্যান রাইটস সোসাইটি তাই যৌথভাবে কাজগুলো করছি। আমাদের সাধ্য সীমিত কিন্তু সাধের মাত্রা অনেক উপরে। তাই কেবল টিভি ভিউয়ারস ফোরাম ও সৃষ্ট মানবাধিকার একসঙ্গে কাজ করছি। এ সপ্তাহটা খুব ক্রিটিক্যাল তাই আমরা খুব সাবধানে যথানিয়মে দূরত্ব বজায় রেখে কাজগুলো করছি।‘

আগামী সপ্তাহে সাভার ও ধামরাই এলাকাতেও হিজড়াদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রাণঘাতী (কভিড ১৯) করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশে চলছে অঘোষিত লকডাউন। করোনা পরিস্থিতিতে সবকিছুই থমকে গেছে, থমকে গেছে মানুষের রুটি-রুজির মাধ্যমও। এতে সবচেয়ে বেশি কষ্টে আছে সমাজের নিম্নআয়ের খেটে-খাওয়া মানুষেরা। কর্মহীন এসব মানুষের কিছুটা কষ্ট লাঘবে সংস্থার পক্ষ হতে এই উদ্যোগ নিয়েছি।‘

লকডাউনকালে অতিপ্রয়োজনীয় কারণ ছাড়া বাড়ির বাইরে বের না হতে, প্রয়োজনে বাইরে বের হলে মাস্ক ব্যবহার করা ও নিয়মিতভাবে সাবান বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান সংগঠনটির মহাসচিব। দেশের বিভিন্ন জেলায় সংগঠন দুইটির শাখায় এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন শাহাদাৎ হোসেন মুন্না।

এসময় অন্যদের মধ্যে সৃষ্টি হিউম্যান রাইটস সোসাইটির সহকারি পরিচালক আরিফুর রহমান, জেসমিন আক্তার, সুমন মিয়া, জনি সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকাটাইমস/০১এপ্রিল/কারই/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :