করোনা রোগীর বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির সাংসদ দুদু

জয়পুরহাট প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৫ জুন ২০২০, ২২:৩২

জয়পুরহাটের দরিদ্র করোনা রোগীদের বাড়িতে বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির হলেন জয়পুরহাট-১ আসনের সাংসদ সামছুল আলম দুদু। শুক্রবার সকালে জয়পুরহাট সদর উপজেলার দোগাছি, পালি, পাঁচবিবি উপজেলার আটাপাড়া, ধরঞ্জিতে করোনা আক্রান্ত এলাকায় গিয়ে তিনি নিজে বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনা রোগীর স্বজনদের হাতে খাদ্যসামগ্রী ও নগদ অর্থ পৌঁছে দেন।

জানা গেছে, করোনা আক্রান্ত সংখ্যা বেড়েই চলেছে এ জেলায় বর্তমানে ২০৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত। তার মধ্যে ৮২ জনই জয়পুরহাট সদর ও পাচঁবিবি উপজেলার। এদের মধ্যে অধিকাংশই দরিদ্র। তাদের আইসোলেশনে নেওয়ার পর থেকে পরিবারের লোকজনের দিন কাটে অতি কষ্টে। সেই বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে দরিদ্র পরিবারে খাদ্য সহযোগিতা ও নগদ অর্থ দেওয়া শুরু করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সামছুল আলম দুদু।

তারই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার সকালে জয়পুরহাট সদর ও পাঁচবিবি উপজেলার করোনায় আক্রান্ত এলাকাগুলোতে অসহায় মানুষগুলো হাতে তুলে দিচ্ছেন চাল, আলু, পেয়াজ, ডাল, লবণ, তেল, সাবানসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী ও নগদ ২ হাজার টাকা।

এ সময় ভাদসা ইউনিয়ন পরিষদ সরোয়ার হোসেন স্বাধীন, আয়মা রসুলপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদুল আলম বেনুসহ স্থানীয় সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সামছুল আলম দুদু বলেন, করোনাভাইরাস আক্রান্তদের অবহেলার চোখে নয় তাদের সহমর্মিতার পরশ ও সার্বিক সহযোগিতা প্রয়োজন। আক্রান্ত পরিবারের আশপাশের পরিবারগুলোকে সচেতন করা হয়েছে। যেন তারা স্বাস্থ্যবিধি মানেন এবং আক্রান্ত ব্যক্তি ও তাদের পরিবারের প্রতি সংবেদনশীল থাকেন। পরিবারগুলোর একমাত্র উপার্জন ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসার জন্য আইসোলেশনে রয়েছেন। আক্রান্তদের পরিবারগুলো অনেক কষ্টে আছেন। তাদের কথা চিন্তা করে করোনায় আক্রান্ত দরিদ্র প্রতিটি পরিবারকে পর্যায়ক্রমে নানাভাবে সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, লাইনে দাঁড় করিয়ে নয়, নিজ বাড়ি বাড়ি গিয়ে এই করোনা আক্রান্ত পরিবারগুলোকে খাদ্যসামগ্রীসহ নগদ অর্থ দিয়ে আসছি গরিবদের কষ্ট কি আমি বুঝি। আমি নিজেকে কখনো এমপি ভাবি না, গরিব-দুঃখী মানুষই আমার সব। করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে না আসা পর্যন্ত এলাকার বিত্তবানরা এই মানুষগুলোর পাশে থাকলে একজন মানুষও না খেয়ে থাকবে না।

(ঢাকাটাইমস/৬জুন/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :