বিকালে ইংলিশদের মুখোমুখি হচ্ছে টাইগাররা

ক্রীড়া প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০৯ | প্রকাশিত : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫৯

দেখতে দেখতে টি-টোয়েন্টিতে ১১৬টি ম্যাচ খেলে ফেললেও এখনও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মোকাবিলা করা হয়নি বাংলাদেশের। এবার ইংলিশদের বিপক্ষেই লড়তে যাচ্ছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাহিনী। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসরের মূলপর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ (বুধবার) ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামছে রাসেল ডোমিঙ্গোর শিষ্যরা।

দুদলের মধ্যকার এই ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায়। ইংলিশদের বিপক্ষে প্রথম লড়াই জিততে মুখিয়ে আছে টাইগাররা। ম্যাচটি সরাসরি দেখাবে টি-স্পোর্টস ও জিটিভি।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার কথা ছিল। কিন্তু ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা আইপিএল নিয়ে ব্যস্ত থাকায় সফরটি বাতিল করা হয়।

এদিকে বিশ্বকাপের মূলপর্ব হতাশায় শুরু করে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার কাছে ৫ উইকেটে ম্যাচ হারে তারা। অন্য দিকে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে দিয়ে বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করে ইংল্যান্ড।

২০ ওভারের ক্রিকেট না হোক ওয়ানডেতে কিন্তু ইংলিশদের বিপক্ষে দারুণ এক স্মৃতি রয়েছে টাইগারদের। নিশ্চয়ই ক্রিকেটপ্রেমীরা ভুলে যাননি ২০১৫ বিশ্বকাপের কথা। যেখানে অ্যাডিলেডে ইংলিশ দলকে বিদায় করে নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। যদিও পরের বিশ্বকাপেই পাল্টা জবাব দিতে ভুল করেনি তারা। ২০১৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে কার্ডিফে ওদের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করে দল।

তবে আজকের ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ভয় পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল। ম্যাচ প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচ গিবসন বলেন, ‘আমরা যদি তাদের চ্যালেঞ্জ জানাতে চাই এবং শেষ পর্যন্ত খেলাটি জিততে চাই তবে আমাদের সেরা খেলাটা থাকতে হবে। আমরা জানি যে ইংল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপ খুব শক্তিশালী। তাদের বিপক্ষে মূল চাবিকাঠি হলো নিখুঁত বোলিং করে নিজেদেরকে রক্ষা করা। আমরা জানি তারা শক্তপোক্তভাবে লড়াই জমাবে কিন্তু তারা আপনাকে সুযোগও দেবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইংল্যান্ডের খুব দৃঢ় একটি ব্যাটিং লাইন আছে। আমাদের নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে, যদি ওদের চ্যালেঞ্জ জানাতে চাই বা জিততে চাই। আমরা গত রাতে টিম মিটিংয়ে এসব নিয়ে কথা বলেছি। মিটিংয়ে যা নিয়ে কথা হয়েছে এর কিছু নিয়ে আজকের অনুশীলনে কাজ করার সুযোগ পাব। আমরা যাই করব, সেটা নিখুঁত হতে হবে এবং নিজেদের ওপর আস্থা রাখতে হবে।’

ইংলিশদের এমন শক্তিশালী হয়ে ওঠার শুরু ২০১৫ বিশ্বকাপে ব্যর্থতার পর। ইয়ন মরগানের নেতৃত্বে পুরোপুরি পাল্টে যায় দলটি। ডরভয়হীন ক্রিকেট খেলে হয়ে ওঠে রীতিমত ভীতিকর। সেই শুরুর সময়টায় ইংল্যান্ডের পেস বোলিং কোচ ছিলেন ওটিস গিবসন। এখন বাংলাদেশে একই দায়িত্ব পালন করা সাবেক ক্যারিবিয়ান পেসার আশা দেখাচ্ছেন দলকে। তার মতে, ইংল্যান্ডের আগ্রাসী ক্রিকেটের মাঝেই আসবে সুযোগ, ঠাণ্ডা মাথায় সেটা লুফে নিতে হবে। তাহলেই মিলবে সাফল্য।

(ঢাকাটাইমস/২৭অক্টোবর/এইচএন)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :