সিএসইতে অথরাইজড রিপ্রেজেনটেটিভদের প্রশিক্ষণ

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:৪১ | প্রকাশিত : ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:৩৯

দেশের দ্বিতীয় পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) চার দিন ব্যাপী ট্রেক হোল্ডার কোম্পানিসমূহের অথরাইজড রিপ্রেজেনটেটিভদের কোয়ালিফাইড হওয়ার প্রশিক্ষণ বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্নচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)-এর মাল্টিপারপাস হলে শুরু হয়েছে।

বিএসইসির কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের উদ্ভোধন করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন সিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. গোলাম ফারুক, চিফ রেগুলেটরি অফিসার, মো. মর্তুজা আলম, এজিএম এবং হেড অব ট্রেনিং, আরিফ আহমেদ এবং ম্যানেজার আদনান আব্দুর রকিব।

এসময় ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, এই ধরনের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে আমি স্বপ্রনোদিত হয়ে অংশগ্রহণ করে থাকি। কারণ আপনারা অর্থাৎ অথরাইজড রিপ্রেজেনটেটিভরা হলো শেয়ারবাজারের প্রাণ। আপনারা যদি সঠিকভাবে সহায়তা করেন তবে তা আপনার জন্য তদুপরি শেয়ারবাজার সবার জন্য কল্যাণকর।

তিনি বলেন, অথরাইজড রিপ্রেজেনটেটিভ নীতিমাল অনুযায়ী আপনাদের ০৪টি বৈশিষ্ট্য হলো – সুনাম থাকতে হবে, সুনামের সাথে বিশ্বস্ততা, বিশ্বস্ততার সাথে সততা এবং সততার সাথে দক্ষতা। এই বৈশিষ্ট্যগুলো সংঘবদ্ধ অর্থাৎ একটির সাথে আরেকাট জড়িত। এই বৈশিষ্ট্যগুলোর সমন্বয়ে আপনারা আপনাদের কার্যক্রম পরিচালনা করলে যেমন নিজের উন্নতি হবে, তেমনি আপনার প্রতিষ্ঠান এবং দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও ভূমিকা থাকবে।

সিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম ফারুক বলেন, আপনারা বিনোয়োগ ঝুঁকি কিভাবে কমানো যায়, সে ব্যাপারে সর্তক থাকবেন। বিশেষ করে বিনোয়োগের আগেই জেনে নিবেন কোস্পানির ব্যবস্থাপনা, ইপিএস, পিই এবং ডিভিডেন্ড ইল্ড। সারা বিশ্বব্যাপী মিউচুয়াল ফান্ড হলো সবচেয়ে জনপ্রিয় বিনিয়োগ সিকিউরিটিজ। আপনারাও এতে বিনোয়োগ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। তবে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, আপনার বিনিয়োগ যেন হয় ঝুঁকি কমানোর জন্য হয়।

চিফ রেগুলেটরি অফিসার মর্তুজা আলম বলেন, সবাই এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সিকিউরিটিজ নিয়মসমূহ ভালোভাবে জানতে পারবেন এবং কর্মক্ষেত্রে এর সঠিক প্রয়োগ করবেন।

চারদিন ব্যাপী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী অথরাইজড রিপ্রেজেনটেটিভগণ বিচার ও সালিশ প্রক্রিয়া, চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ লি. এর ট্রেক, কমপ্লায়েন্স এবং লিস্টিং বিধিমালা, মার্জিন বিধিমালা, সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ বিধিমালা, বিচার ও সালিশ প্রক্রিয়া, বিনিয়োগ শিক্ষা ও বিনিয়োগকরীদের সুরক্ষা, জাতীয় শুদ্ধাচার, (স্টক-ডিলার, স্টক- ব্রোকার, ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা, ২০০০, ডিপি সংক্রান্ত কমপ্লায়েন্সসহ টেডিং বিষয়ক সম্যক জ্ঞান লাভ করবেন। উল্লেখ্য, চারদিন ব্যাপী প্রশিক্ষণশেষে অংশগ্রহণকারীদের ট্রেডিং লাইসেন্স প্রদান করা হবে।

(ঢাকাটাইমস/৫ডিসেম্বর/এসকেএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :