তাহলে মেসেজ কী ক্লিয়ার

বিশেষ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:২৬ | প্রকাশিত : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৪০

নিকট অতীতে এমন ঘটনা কি কখনো ঘটেছে? সরকার প্রধান রাষ্ট্রীয় সফরে গেছেন আর পররাষ্ট্রমন্ত্রী নাই!

এমন নজির জানা নেই খোদ সেগুনবাগিচাস্থ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্তাদের। ঢাকা টাইমস সাবেক কয়েকজন রাষ্ট্রদূত, কূটনীতিকের সঙ্গে কথা বলেছে। কিন্তু কেউই মনে করতে পারেন না এমন কিছু।

বরং এটাই রীতি যে, সরকার প্রধান রাষ্ট্রীয় সফরে বিদেশে গেলে অনিবার্যভাবে সফরসঙ্গী হন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ভারত সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কেন যুক্ত হলেন না পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আবদুল মোমেন? কেন বাদ পড়লেন তিনি?

ঢাকা টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর পক্ষ থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা হয়েছিল। মুঠোফোন বাজলেও ড. আবদুল মোমেন রিসিভ করেননি। কল ব্যাকও করেননি।

অনেক কানাঘুষা চারিদিকে। রাজনীতি বোধহয় এমনই। অনিশ্চয়তা একদিকে যেমন, আরেকদিকে সাসপেন্স। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকায় পর্যন্ত গুঞ্জন, ‘মেসেজ ক্লিয়ার’। মেসেজটা কী? আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী মহলের কয়েকজনের সঙ্গে ঢাকা টাইমস কথা বলেছে। কেউই নাম প্রকাশ করে মন্তব্য করতে রাজি নন। তবে আড়ালের আলোচনা হলো, ড. আবদুল মোমেনকে গুরুত্বহীন করে দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। প্রথমে সরকারে। পরে দলে।

ড. আবদুল মোমেন কি মন্ত্রী থাকছেন? না-কি তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হবে? এমন আলোচনা শুরু হয়েছে আবারও। প্রধানমন্ত্রী ভারত সফর শেষে দেশে ফিরে এলে কি তারপর সিদ্ধান্ত?

একের পর এক এমন অনেক প্রশ্ন আওয়ামী লীগের ভেতরে ও বাইরে। সূত্র মতে, আওয়ামী লীগের এক পক্ষের মত হলো, ড. আবদুল মোমেনের দপ্তর বদল এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। আরেক পক্ষ মনে করছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে একসঙ্গে অনেকগুলো বার্তা দেওয়া হয়েছে। তিনি দায়িত্বশীল পদে থেকে যে অপ্রাসঙ্গিক মন্তব্য করে বিতর্ক সৃষ্টি করতে পারেন না- সেটি যেন বুঝতে পারেন। পাশাপাশি আত্মমর্যাদাবোধ থেকে তিনি যদি মন্ত্রিসভা থেকে সরে যান তাহলে আরও ভালো। আর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী হয়েও যে সরকার প্রধান চাইলে ‘গুরুত্বহীন’ করে দেওয়া যায় ভারত সফরের শেষ মুহূর্তে বাদ দিয়ে সেটাও কার্যত তাঁকে বুঝিয়ে দেওয়া হলো।

সরকারের একজন নীতিনির্ধারক ঢাকা টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেও নিশ্চয়ই চমকে গেছেন। তিনি কি জানতেন যে বাদ পড়ছেন? জানতেন না। জানলে কি আর রবিবার সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন যে, ভারত সফরে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হচ্ছেন।

ড. আবদুল মোমেনের সাম্প্রতিক অতিকথনে বিরক্ত আওয়ামী লীগের অনেকেও। বিশেষ করে ‘অন্য দেশের তুলনায় বেহেশতে আছি’; ‘ভারতে গিয়ে বলে এসেছি শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় রাখুন’- মন্তব্য দারুণ অস্বস্তিতে ফেলেছে আওয়ামী লীগকে।

বিব্রত, বিরক্ত সরকার কি তবে ছেঁটে ফেলতে চাইছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে? প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে তাঁকে অন্তর্ভূক্ত না করা কি তারই শুরু?

(ঢাকাটাইমস/৫সেপ্টেম্বর/এআরডি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিবেদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :