মুন্সীগঞ্জে কারখানার আগুনে দগ্ধ একজনের মৃত্যু

সালথা-নগরকান্দা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ০৯ মার্চ ২০২৪, ১৭:২৮ | প্রকাশিত : ০৯ মার্চ ২০২৪, ১৭:০২

মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুল এলাকার একটি প্লাস্টিক কারখানার আগুনে দগ্ধ চার শ্রমিকের একজনের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (৮ মার্চ) সন্ধ্যায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

মৃত্যুবরণকারী ওই শ্রমিকের নাম রিয়াজুল ফকির (৩৪) তিনি ফরিদপুরের সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের লক্ষণদিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

এর আগে বৃহস্পতিবার ( মার্চ) রাত পৌনে ৯টার দিকে ওই কারখানায় আগুন লাগে। এতে কারখানা শ্রমিক সালথার চার যুবক দগ্ধ হন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

অন্য দগ্ধরা হলেন- সালথার গট্টি ইউনিয়নের কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের ইকবাল হোসেন (৩৭), রাকিব হোসেন (২৫) মতিউর রহমান (৩৩)

শনিবার সকালে নিহত রিয়াজুলের লাশ সালথার বাড়িতে আনা হলে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। পরে বাদ জোহর লক্ষণদিয়া মাদরাসা মাঠে জানাজা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে রিয়াজুলের লাশ দাফন করা হয়।

নিহতের পরিবার জানান, সংসারের একমাত্র উপার্জনকারী ছিলেন রিয়াজুল। তার এমন মৃত্যু কেউ মেনে নিতে পারছে না। এখন কী হবে রিয়াজুলের স্ত্রী মেয়ে দুটির। কে নেবে তাদের দায়িত্ব। এই চিন্তাই ঘুরপাক খাচ্ছে পরিবারের মধ্যে।

গট্টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান লাবলু বলেন, দগ্ধ চার যুবকই গরিব। তারা পেটের তাগিদে মুন্সীগঞ্জে গিয়ে ফ্যাক্টরিতে কাজ করতেন। সেখান থেকে যা আয় করতেন, তা দিয়ে কোনো রকমে তাদের সংসার চলত। রিয়াজুলের মৃত্যুতে স্ত্রী-সন্তানদের চরম বেকায়দায় পড়তে হবে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাতে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মুক্তারপুল এলাকায় জে কে নামে একটি প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে সালথার ওই চার যুবক দগ্ধ হন।

(ঢাকাটাইমস/০৯মার্চ/প্রতিনিধি/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :