চকবাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০৯ | প্রকাশিত : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯:৫৩

রাজধানীর পুরান ঢাকার চকবাজারে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। এ ঘটনায় অন্তত ৭০টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হওয়ার নয় ঘণ্টা পরও তা পুরোপুরি নেভানো সম্ভব হয়নি।

অগ্নি নির্বাপক বাহিনীর ৩৭টি ইউনিট আগুন নেভাতে কাজ করে। সকালে হেলিকপ্টারে করে উপর থেকে পানি ছিটানোর পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

এ দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৭০টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী। মৃত ব্যক্তির সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে তাঁর আশঙ্কা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে ঘটনাস্থল থেকে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। এ সময় ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আইজিপির সঙ্গে ছিলেন।

আইজিপি বলেন, ‘এটা তো কেমিক্যাল গোডাউন। রাসায়নিক পদার্থ ছিল। ফলে আগুন খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা ছিল। ওই ভবনে খুব দ্রুত আগুন ছড়িয়েও পড়ে। আশপাশেও তা ছড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা ছিল। তবে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের নিরলস পরিশ্রমের কারণে তা নিয়ন্ত্রণে আনা গেছে।

‘এখন পুরো ভবন খুঁজে দেখা হচ্ছে আর কোনো মৃতদেহ আছে কি না। আমরা মনে করছি, আরও কয়েকজনের মৃতদেহ থাকতে পারে। পুরো ভবনটি খুঁজে দেখার পর তা বোঝা যাবে।’

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যান্স) এ কে এম শাকিল নেওয়াজও আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা গেলেও ভেতরে এখনও জ্বলছে। রাসায়নিকসহ বিভিন্ন দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন পুরো নেভাতে অনেক সময় লাগবে।’ 

বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে তিনি এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, লাশের সংখ্যা আরও বাড়বে।

এর আগে ‌ভোর সোয়া ৫টার দিকে ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, চকবাজারে একাধিক ভবনে আগুন লাগার ঘটনায় ৩৫টি ব্যাগে করে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কোনো  কোনো ব্যাগে একাধিক লাশও আছে।

বুধবার রাত ১০টা ৩৮ মিনিটে রাজধানীর পুরান ঢাকার চকবাজার থানার চুড়ি হাট্টা শাহী মসজিদের সামনে একটি বহুতল ভবনে আগুন লাগে। পড়ে তা আশেপাশের ভবনে ছড়িয়ে পড়ে।

ফায়ার সার্ভিসের ৩২টি ইউনিট চারঘণ্টার মতো কাজ করে আগুন নিয়ন্ত্রণে নেয়।

এই ঘটনায় দগ্ধসহ আহত কমপক্ষে অর্ধশত ব্যক্তিকে ইতোমধ্যে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক আলী আহম্মেদ বলেন, চকবাজারের সরু সড়কে ভবনগুলো ঘেঁষাঘেষি করে তৈরি করায় আগুন নেভানোর কাজ করতে কর্মীদের বেগ পোহাতে হয়। পাশাপাশি ওই এলাকার দোকান ও গুদামগুলোতে দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।    

ঢাকাটাইমস/২১ফেব্রুয়ারি/ওআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :