টাঙ্গাইলে প্রেমিককে বেঁধে রেখে প্রেমিকাকে ‘গণধর্ষণ’

নিজস্ব প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল
 | প্রকাশিত : ১৭ মার্চ ২০১৯, ২২:০১
ফাইল ছবি

টাঙ্গাইলের সখীপুরে প্রেমিককে গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে প্রেমিকাকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের পর প্রেমিকযুগলকে বিবস্ত্র করে মুঠোফোনে ভিডিও ধারণ করারও ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে ধর্ষিত ওই কিশোরীর বাবা সখীপুর থানায় পাঁচজনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত জালাল উদ্দিন নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মামলার বিবরণ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকালে সখীপুর উপজেলার বাসিন্দা ওই কিশোরী তার প্রেমিকের সঙ্গে উপজেলার বহেড়াতৈল ইউনিয়নের উলিয়াচালা খেলার মাঠের পাশে বসে গল্প করছিল। এ সময় ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ ঘাটেশ্বরী গ্রামের সাদ্দাম হোসেন তার বন্ধু আশরাফুল, জালাল, নজরুল ও আফাজ মোটরসাইকেল নিয়ে সেখানে যায়। পরে ওই প্রেমিকযুগলকে হাত মুখ বেঁধে পাশের একটি বনে নিয়ে যায়। সেখানে প্রেমিক আবদুর রহিম ওরফে বাবুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে সাদ্দাম, আশরাফুল ও জালাল ওই কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে। এরপর প্রেমিকযুগলকে বিবস্ত্র করে তাদের নানা আপত্তিকর দৃশ্যও মুঠোফোনে ধারণ করে। ওইদিন বিকাল ৪টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে তাদের ওপর এ পাশবিক নির্যাতন। রাত ৯টার দিকে ঘটনা কাউকে বললে অশ্লীল ভিডিও ও ছবি ফেসবুক ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য হিরো তালুকদার বলেন, ‘ঘটনাটি দুঃখজনক ও নিন্দনীয়। এরসঙ্গে জড়িতরা এলাকার চিহ্নিত বখাটে। এ অমানবিক ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের কঠোর বিচার দাবি করেন তিনি।’

সখীপুর থানার ওসি আমীর হোসেন বলেন, ‘ঘটনার সঙ্গে জড়িত একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার কাছ থেকে ভিডিও ধারণ করা মুঠোফোনটিও উদ্ধার করা হয়েছে। অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

ওই কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।

(ঢাকাটাইমস/১৭মার্চ/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত