মসজিদ নির্মাণ: ঠিকাদারের কাছে ৬০ লাখ চাঁদা দাবি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ মে ২০১৯, ২০:২৬

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজে ঠিকাদারের কাছে ৬০ লাখ চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে । এ অঙ্কের চাঁদা না দিলে ঠিকাদারকে গুলি করে হত্যার হুমকিও দেয়া হয় ।

এ ঘটনায় শনিবার সকালে দৌলতপুর থানায় একটি জিডি করা হয়েছে।

ঠিকাদারের অভিযোগ ও জিডি সূত্রে জানা গেছে, কুষ্টিয়া গণপূর্ত বিভাগ থেকে টেন্ডারের মাধ্যমে প্রায় সাড়ে ১২কোটি টাকার (১২কোটি ৩৮লাখ) দৌলতপুর উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান গ্যালাক্সি এসোসিয়েটস্ প্রাইভেট লিমিটেড। কাজ পাওয়ার পর শুক্রবার রাত নয়টার দিকে বাবু নামে এক ব্যক্তি মোবাইল ফোনে ঠিকাদার ও দৌলতপুর কলেজের অধ্যক্ষ ছাদিকুজ্জামান খান সুমনের কাছে ৬০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। মসজিদ নির্মাণে দাবি করা চাঁদার ৬০ লাখ টাকা ঠিকাদার ছাদিকুজ্জামান খান সুমন দিতে অস্বীকৃতি জানালে বাবু তাকে গুলি করে হত্যার হুমকি দেন। বাবু নিজেকে আন্ডার ওয়ার্ল্ডের শীর্ষ সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য দাবি করে ঠিকাদার ছাদিকুজ্জামান খান সুমনের কাছে ৬০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন বলেও জিডিতে উল্লেখ করা হয়।

মোটা অংকের চাঁদার দাবির বিষয়ে ঠিকাদার ছাদিকুজ্জামান খান সুমন ঢাকাটাইমসকে বলেন, মসজিদ নির্মাণ করতে গিয়েও আন্ডার ওয়ার্ল্ডের শীর্ষ চরমপন্থী সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে সন্ত্রাসী বাবু মসজিদ নির্মাণ কাজের মোট টাকার শতকরা ৫ভাগ অর্থাৎ ৬০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে সে আমাকে গুলি করে হত্যার হুমকি দিয়েছে।

তিনি বলেন, জীবনের নিরাপত্তা ও শান্তি শৃঙ্খলা বিঘ্নিত হতে পারে ভেবে চাঁদা বাবুসহ অজ্ঞাত ৪-৫জনের নামে আজ সকালে দৌলতপুর থানা একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। যার নং ৭৩৬।

জিডির বিষয়ে দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জিডির বিষয়কে ভয়ানক উল্লেখ করে বলেন, আমি অত্যন্ত আন্তরিক এবং এ বিষয়ে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সে যত বড় মাপের সন্ত্রাসী হোক তার ছাড় নাই।

ঢাকাটাইমস/১৮মে/ ইএস   

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :