চুয়াডাঙ্গায় সন্তানকে জবাই করল মা

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি
 | প্রকাশিত : ১৭ জুন ২০১৯, ১১:৫৯

চুয়াডাঙ্গায় স্নেহা নামে দুই বছরের এক শিশু কন্যাকে জবাই করে হত্যা করেছে এক মা। সোমবার সকালে জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার সনাতনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘাতক মা শামীম আরা সাইমাকে গ্রেপ্তার করেছে। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো বটি।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, আলমডাঙ্গা উপজেলার সনাতনপুর গ্রামের গ্রাম্য চিকিৎসক মামুন অর রশিদের পরিবারের সবাই সকালে ঘুমিয়ে ছিলেন। এ সময় সবার অজান্তে তার স্ত্রী শামীম আরা সাইমা শিশু কন্যা স্নেহাকে বাড়ির দুই তলার ছাদে নিয়ে ধারালো বটি দিয়ে গলাকেটে হত্যা করে।

নিহত শিশুর বাবা মামুন অর রশিদ জানান, সকালে ঘুম থেকে উঠে স্নেহাকে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। কিছুক্ষণ পর বাড়ির দুইতলার ছাদের রান্নাঘরে তার জবাই করা মরদেহ পাওয়া যায়। পরে  আলমডাঙ্গা থানায় খবর দেয়া হয়। সকাল ৮টার দিকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান মুন্সি জানান, ‘ঘাতক মাকে গেপ্তার করা হয়েছে। হত্যার কাজে ব্যবহৃত ধারালো বটি উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে শামীম আরা সাইমা তার শিশু কন্যাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে।’

উপ-পরিদর্শক (এসআই) জিয়াউর রহমান জানান, ‘নিহত শিশুর মরদেহ উদ্ধারের পর সুরতহাল রিপোর্ট শেষে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

স্নেহার চাচা জানান, তার ভাইয়ের স্ত্রী বেশ কিছুদিন ধরে মানসিকভাবে অসুস্থ। এর আগেও স্নেহাকে সে হত্যার চেষ্টা করেছিল। তবে সেবার পরিবারের সদস্যরা দেখে ফেলায় শিশুটি প্রাণে বেঁচে যায়।

ঢাকাটাইমস/১৭ জুন/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :