‘খালেদা হুইলচেয়ারে মানে বাংলাদেশ হুইলচেয়ারে’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:৪১

দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দি দলীয় প্রধান খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির নেতা হাবিব উন নবী খান সোহেল।

খালেদা জিয়া হুইলচেয়ারে মানে বাংলাদেশ হুইলচেয়ারে এমন মন্তব্য করে তিনি দলীয় প্রধানের মুক্তির দাবিতে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সোহেল বলেন, ‘আজকে লাখ লাখ বিএনপির নেতাকর্মীদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। আমাদের চোখের ঘুম কেড়ে নিয়েছে, মনের শান্তি কেড়ে নিয়েছে এই সরকার। আজকের এই সমাবেশ থেকে বলে দিতে চাই শেখ হাসিনা যদি অনতিবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দেন আমাদের লক্ষ লক্ষ নেতাকর্মী রাজপথে রক্ত দেয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। তখন যে আগুন জ্বলবে দমকল বাহিনীও নেভাতে পারবে না।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে যাওয়ার পর থেকে বন্দি জীবন কাটাচ্ছেন বিএনপি নেত্রী। কারান্তরীণ হওয়ার পর আরও একটি মামলায় সাজা হয় বিএনপি প্রধানের।

কারাগারে অসুস্থ হলে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। এখনো তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন আছেন।

বিএনপির মানববন্ধনে দলটির যুগ্ম মহাসচিব সোহেল বলেন, ‘আজকে যখন আমরা প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছি, ঠিক সেই মুহূর্তে আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া পিজি হাসপাতালের ছোট্ট একটি কক্ষে অবস্থান করছেন। আমাদের নেত্রী হুইল চেয়ারে থাকা মানে বাংলাদেশের মানবাধিকার হুইলচেয়ারে থাকা। সত্যিই বাংলাদেশের মানবাধিকার আজ হুইলচেয়ারে, বাংলাদেশের অর্থনীতি আজ হুইলচেয়ারে, বাংলাদেশের গণতন্ত্র এমনকি সমগ্র বাংলাদেশ আজ হুইলচেয়ারে।’

খালেদার ত্যাগের কথা উল্লেখ করে ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি বলেন, ‘পৃথিবীর ইতিহাসে এমন নেত্রী আছেন কিনা আমার জানা নেই, যিনি তাঁর সমস্ত শরীরে মনেপ্রাণে দেশকে বহন করছেন ধারণ করছেন। তিনি আবারও প্রমাণ করেছেন, বাংলাদেশ মানেই বেগম খালেদা জিয়া, বেগম খালেদা জিয়া মানেই বাংলাদেশ।’

খালেদা জিয়া কারাগারে কেন মানববন্ধনে তার ব্যাখ্যা দিয়ে সোহেল বলেন, ‘কিছুদিন আগে প্রেসক্লাবে একটি অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে বলেছিলাম, আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রীর অপরাধ আমাদের নেত্রী মুক্ত থাকলে বাংলাদেশকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলা যায় না। তিনি মুক্ত থাকলে ৭০০০ টাকায় বালিশ কেনা যায় না। ৩৭ লক্ষ টাকায় পর্দা কেনা যায় না। তিনি মুক্ত থাকলে শেয়ারবাজার লুট করা যায় না, তিনি মুক্ত থাকলে বাংলাদেশকে ডাম্পিং গ্রাউন্ড বানানো যায় না। আজকে আমাদের নেত্রীকে কারাগারে রেখে বাংলাদেশকে ডাম্পিং গ্রাউন্ডে পরিণত করা হয়েছে। আমরা এটা কোনদিনও মানতে পারি না। এটা কোনোভাবেই হতে দেব না।’

ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, ‘বেগম জিয়ার জন্য আজকে মায়েরা কান্না করছে, বাবারা কান্না করছে, ভাইয়েরা কান্না করছে, বোনেরা কান্না করছে। লক্ষ লক্ষ বিএনপির নেতাকর্মীদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে।’

সরকারের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে সোহেল বলেন, ‘স্বৈরাচার এরশাদের পতনের আগে যেমন জেহাদ ও মিলনের রক্ত আগুন ঝরিয়েছিল, তখন যেমন এরশাদের ক্ষমতার তক্ত তাউস জ্বলে দাউ দাউ করছিল- একইভাবে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আমরা লক্ষ লক্ষ নেতাকর্মী প্রয়োজনে রক্ত দেব। তখন যে আগুন জ্বলবে আপনি শেখ হাসিনা পৃথিবীর সমস্ত দমকল বাহিনী নিয়ে এসেও সে আগুন নেভাতে পারবেন না।’

(ঢাকাটাইমস/১১সেপ্টেম্বর/বিইউ/এমআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :