চসিক নিয়ে অভিযোগকারীদের অধিকাংশ আসেননি গণশুনানিতে

চট্টগ্রাম ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২২:২৩ | প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২২:১৯

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সেবার মান, পরিচ্ছন্নতা, দরপত্র ও পদোন্নতিতে অনিয়ম, নালা দখলসহ নানা অনিয়ম নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে এতে অভিযোগকারীদের বেশিরভাগই ছিলেন অনুপস্থিত।

আজ সোমবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের শাহ আলম বীর উত্তম মিলনায়তনে দুদক ও মহানগর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, চট্টগ্রাম এই শুনানির আয়োজন করে।

সকাল সাড়ে ৯টা থেকে অনুষ্ঠান শুরু হলেও মূল অনুষ্ঠান শুরু হয় ১১টায়। শুনানি উপলক্ষে কিছুদিন আগে থেকে অভিযোগ জমা দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ব্যানার টানানো হয়। এই সময় অভিযোগগুলো জমা পড়ে। তবে, লিখিতভাবে (অভিযোগ দেওয়া) অভিযোগকারীদের অনেকেই শুনানিতে অনুপস্থিত ছিলেন।

শুনানিতে পরিচ্ছন্নতা বিভাগের কার্যক্রম এবং রাজস্ব বিভাগের বিরুদ্ধে ট্রেড লাইসেন্সে অতিরিক্ত টাকা আদায়, হয়রানি, গৃহকর বৃদ্ধির ব্যাপারে অভিযোগ করেন একাধিক ব্যক্তি। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

শুনানি চলাকালে বেশিরভাগ অভিযোগ ছিল প্রকৌশল ও রাজস্ব বিভাগের বিরুদ্ধে। এছাড়া আগ্রাবাদ এলাকার মাহবুবুল আলম নামের একজন পরিচ্ছন্ন কর্মীকে ১০ লাখ টাকা ও জাল সার্টিফিকেটের মাধ্যমে পদোন্নতির অভিযোগ উঠে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে।

বিষয়টি সিটি মেয়র আজম নাছির উদ্দীনকে খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন দুদক কমিশনার (তদন্ত) এএফএম আমিনুল ইসলাম।

ঢাকাটাইমস/১৪অক্টোবর/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বন্দর নগরী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :