করোনা: ইতালিতে ২৪ ঘন্টায় ৬৮৩ জনের প্রাণহানি

কমরেড খোন্দকার, ইউরোপ ব্যুরো
 | প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০২০, ২৩:৫২

করোনাভাইরাসে ইতালিতে ২৪ ঘণ্টায় ৬৮৩ জন মারা গেছেন। দিনদিন বাড়ছে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা।গতকাল এ সংখ্যা ছিল ৭৪৩ জন। এই নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত হাজার ৫০৩ জনে।এর মধ্যে ৩১ জন মেডিকল টিমের সদস্য রয়েছেন।

এখন পর্যন্ত যে কোনও দেশে করোনায় এটাই সর্বোচ্চ মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ হাজার ২১০ জন, যা গতকালের চেয়ে কম। মোট আক্রান্ত ৭৪ হাজার ৩৮৬ জন।

জনগণকে সুরক্ষা দিতে সরকার করোনা মোকাবিলায় সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে। ফলে এ পর্যন্ত নয় হাজার ৩৬২ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

এদিকে ইতালির নাগরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেল্লি অসুস্থতার কারণে আজকের সংবাদ সম্মেলন বাতিল করেছেন।

ইতালির ২০ অঞ্চলের মধ্যে লোম্বারদিয়ায় করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত (মিলান, বেরগামো, ব্রেসিয়া,ক্রেমনাসহ)১১টি প্রদেশ। আজ এ অঞ্চলে মারা গেছে ২৯৬ জন। শুধু এ অঞ্চলেই মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে চার হাজার ৪৭৪ জনে দাঁড়িয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ হাজার ৩৪৬ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে সাত হাজার ২৮১ জন।

লোম্বারদিয়ার প্রেসিডেন্ট আত্তিলিয়ো ফোনতানা গত সোমবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, পূর্ব ঘোষিত পদক্ষেপে ‘জরুরি’ সরবরাহ ব্যবস্থা ছাড়া ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হাসপাতাল, সড়ক ও রেলপথ বাদে সব ধরনের নির্মাণ কাজও বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। এছাড়া বাড়ির বাইরে সব ধরনের খেলাধুলা ও ব্যায়াম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ আইন অমান্যকারীকে ৪০০ থেকে তিন হাজার ইউরো জরিমানা করা হবে।

এদিকে সুপারমার্কেট, ফার্মেসি, পোস্ট অফিস ও ব্যাংক খোলা থাকবে এবং গণপরিবহনও সচল থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি আরো বলেন,ফেয়ারা মিলানোতে অস্থায়ী হাসপাতাল নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। বেরগামোতে নতুন একটা হাসপাতাল এ সপ্তাহের মধ্যেই চালু হবে। ক্রেমনাতে মাঠের মধ্যে তাঁবু টানিয়ে স্বাস্থ্যসেবা দেয়া হচ্ছে। চীন থেকে আগত মেডিকেল টিম বেরগামোতে কাজ করছে। কিউবা থেকে আগত ৫২ সদস্যের মেডিকেল টিম ক্রেমনাতে কাজ করছে। রাশিয়া থেকে আগত ১২০ সদস্যের মেডিকেল টিম লোম্বারদিয়া অঞ্চলে করোনা আক্রান্তদের সেবা দিতে কাজ শুরু করেছেন।

তিনি আবারও জোর দিয়ে বলেন, করোনাভাইরাসকে জয় করতে হলে আমাদের ঘরে থাকতে হবে। ঘরে থাকা ছাড়া দ্রুত করোনাকে জয় করা কোনভাবেই সম্ভব নয়।

এদিকে আজ চীন থেকে আরেকটি ৩০ সদস্যের মেডিকেল টিম ইতালিতে এসে পৌঁছেছে। তাদের সাথে তিন লাখ মাস্কসহ প্রায় আট টন চিকিৎসা সামগ্রী রয়েছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কন্তের আহবানে সাড়া দিয়ে দেশের এই দুর্দিনে সাত হাজার ২২০ জন অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসক, নার্স ও অ্যাম্বুলেন্স কর্মী স্বাস্থ্যসেবা দিতে করোনায় আক্রান্তদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।

আজ সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী জোসেপ্পে কন্তের সংসদে ভাষণ দেয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে মারা গেছেন, স্পেন ৪৪৩, জার্মান ২৭, সুইজারল্যান্ড ২৭, পর্তুগাল ১৪, নেদারল্যান্ড ৮০, অস্ট্রিয়া ২, বেলজিয়াম ৫৬, নরওয়ে ২, সুইডেন ৪, ডেনমার্ক ২, গ্রিস ২ জন।

(ঢাকাটাইমস/২৫মার্চ/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :