জামালপুরে কমছে বন্যার পানি, বাড়ছে দুর্ভোগ

জামালপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ জুলাই ২০২০, ২৩:১০

জামালপুরে বন্যার পানি কমলেও বাড়ছে বন্যাকবলিত এলাকার মানুষের দুর্ভোগ। যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি কমায় বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেয়া মানুষ বাড়ি ফিরতে শুরু করলেও বাড়ি-ঘরে এবং বাড়ির আশপাশে পানি ও কাঁদা থাকায় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের।

অপরদিকে যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের অববাহিকার কম পক্ষে দেড় শতাধিক গ্রাম এখনও দুই থেকে তিন ফুট পানির নিচে তলিয়ে থাকায় প্রায় ৩ লাখ মানুষ এখনও পানিবন্দি। পানিবন্দি এসব মানুষ বন্যায় চরম দুর্দশায় দিনাতিপাত করছে।

অনেক পরিবারের অভিযোগ, দীর্ঘ ১২ দিন ধরে তারা পানিবন্দি থাকলেও এখন পর্য়ন্ত সরকারি ত্রাণ সহায়তা পায়নি তারা।

তবে জামালপুরের জেলা প্রশাসক এনামুল হক জানান, জেলার বন্যাকবলিত এলাকার মানুষের জন্য এ পর্য়ন্ত ৪৩৪ মেট্রিক টন চাল, ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার ও নগদ ১১ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গত এক সপ্তাহ ধরে এসব ত্রাণসামগ্রী পানিবন্দি দরিদ্র ও নিম্নআয়ের পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানান, প্রশাসনের পক্ষ থেকে যে পরিমাণ ত্রাণসামগ্রী বরাদ্দ দেয়া হয়েছে- তা হাজার বানভাসী মানুষের জন্য খুবই অপ্রতুল।

এদিকে বন্যার পানির তোড়ে বিভিন্ন সড়ক ভেঙে যাওয়ায় যাতায়াতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ আমিনুল ইসলাম জানিয়েছেন। বন্যায় জেলা প্রায় ১৪ হাজার হেক্টর জমির আউশ ধান, পাট ও সবজির পানির নিচে তলিয়ে গেছে। এতে কৃষকরা ক্ষতির শিকার হচ্ছে। বন্যায যেসব কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তাদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। তাদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে বলে জানান এই কৃষি কর্মকর্তা।

(ঢাকাটাইমস/৬জুলাই/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :