নারী উদ্যোক্তাদের ঘুরে দাঁড়াতে বড় চ্যালেঞ্জ ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল

জহির রায়হান
| আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০২০, ১৪:৫৯ | প্রকাশিত : ১৪ আগস্ট ২০২০, ১১:০৫

করোনার মহামারি পরিস্থিতির ধাক্কা সামলিয়ে নারী উদ্যোক্তাদের ব্যবসা শুরু করতে ওয়ার্কিং ক্যাপিটালের অভাব বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট সেলিমা আহমাদ।

নিটল-নিলয় গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান ও কুমিল্লা-২ আসনের এই সংসদ সদস্য বলেন, এ থেকে উত্তরণে নারী উদ্যোক্তাদের সহজ শর্তে ঋণ ও তাদের তথ্যপ্রযুক্তিতে প্রশিক্ষণ দেয়া প্রয়োজন।

ঢাকা টাইমসের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন সেলিমা আহমাদ এমপি । এই সময় তিনি নারী উদ্যোক্তাদের চ্যালেঞ্জগুলো তুলে ধরেন।

সেলিমা আহমাদ বলেন, এই মুহূর্তে নারী উদ্যোক্তাদের প্রধান চ্যালেঞ্জ হলো তাদের ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল নেই। গত চার মাস ব্যবসা বন্ধ থাকাতে, তাদের হাতে যে নিজস্ব অর্থ ছিল সেটা খরচ হয়ে গেছে। ব্যবসাটা ধরে রাখার জন্য একটা খরচ আছে। চার-পাঁচ মাস কোনো আয় নেই, কিন্তু খরচ কম-বেশি ছিলই। ফলে এখন যখন ব্যবসাটা আবার চালু করছে, তখন তাদের ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল নেই। এটা এক নম্বর চ্যালেঞ্জ।

দুই নম্বর চ্যালেঞ্জ হলো বাংলাদেশ ব্যাংক যে স্টিমুলাস প্যাকেজ দিচ্ছে, সেখানে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সুনির্দিষ্ট কোনো সুযোগ-সুবিধার কথা আসেনি। এ আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে নারী উদ্যোক্তারা কোনো রকম সহযোগিতা পাচ্ছে না।

বেশির ভাগ নারী উদ্যোক্তা বিউটি পার্লার, ফ্যাশন ডিজাইনিং বিষয়ে কাজ করে। করোনার এই সময় এমনিতে তাদের ব্যবসা কমে গেছে। এখন কোভিড-১৯ ফেইস করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গ্রাহককে সেবা দেয়ার চেষ্টা করছে। কিন্তু নতুন করে আবার ব্যবসা করার জন্য তাদের কাছে অর্থ নেই।

আর তৃতীয় চ্যালেঞ্জ হলো আইসিটি ক্যাপাসিটি নারী উদ্যোক্তাদের অনেক কম। তথ্যপ্রযুক্তিতে বেশি করে প্রশিক্ষণ দেয়া তাদের প্রয়োজন।

নারী উদ্যোক্তাদের সুবিধা দেয়ার জন্য চলতি বাজেটে তেমন বরাদ্দ নেই মন্তব্য করে বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট সেলিমা আহমাদ বলেন, এখন অনেক ব্যবসা আছে, সেই ব্যবসা নারী উদ্যোক্তাদের অনলাইনেই করতে হবে। ব্যবসার জন্য আবার যে তাদের অর্থের দরকার, সহযোগিতা দরকার, দক্ষতা বৃদ্ধি দরকার সেটার জন্যই সহযোগিতা প্রয়োজন। নারী উদ্যোক্তাদের জন্য এবারের বাজেটে আলাদাভাবে তেমন কোনো সুযোগ-সুবিধা নেই। এটা আমাদের জন্য হতাশার।

নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সহজ শর্তে সরকারি ঋণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন সেলিমা আহমাদ। বলেন, সরকারের কাছে সুনির্দিষ্ট চাওয়া হলো- দুই শতাংশ সুদে নারী উদ্যোক্তাদের যেন সহজ শর্তে ঋণ দেয়া হয়। তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি ও অনলাইনে যেন তারা ব্যবসা পরিচালনা করতে পারে সে জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে সরকারকে।

(ঢাকাটাইমস/১৪আগস্ট/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :