বেগুনী ধানের বৃত্তে ফসলের মাঠে জাতীয় পতাকা!

সুজন সেন, শেরপুর
 | প্রকাশিত : ০১ মে ২০২১, ১০:৫৪

শেরপুরের ঝিনাইগাতীর এক শিক্ষক তার নিজ জমিতে সবুজ রঙের ধানের মাঠে নকশা আকারে চাষ করেছেন বেগুনি রঙের ধান। দূর থেকে দেখতে এটি অনেকটা বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার নকশার মতো। একদিকে নতুর জাতের বেগুনি রঙের ধান, অন্যদিকে ফসলের মাঠে পতাকা তৈরি করার বিষয়টি এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক কৌতূহল সৃষ্টি করেছে।

উপজেলার ধানশাইল এলাকার বাসিন্দা নূরে আলম সিদ্দিকী স্থানীয় ধানশাইল উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

স্থানীয় দাঁড়িয়ারপাড় এলাকার কৃষক তারেক হোসাইন বলেন, আমি প্রথমে দেখে ভাবছিলাম, ধানক্ষেত মনে হয় নষ্ট হয়ে গেছে। পরে জানতে পারলাম, এটি নতুন জাতের বেগুনি রঙের ধান। স্যার (নূরে আলম) এমনভাবে রোপণ করেছেন, দেখতে যেন বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা। আগামীতে তিনিও এ ধান আবাদ করবেন বলে জানান।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, দেশে প্রথম বেগুনি রঙের ধানের আবাদ শুরু হয় গাইবান্ধায়। সৌন্দর্য ও পুষ্টিগুণে ভরপুর এই ধানের ভাত। ধানটির নাম ‘পার্পল লিফ রাইস’। এই ধানগাছের পাতা ও কাণ্ডের রঙ বেগুনি। আর এর চালের রঙও হয় বেগুনি। ধানের এই জাতটি কৃষকদের কাছে বেগুনি রঙের ধান বা রঙিন ধান হিসেবে পরিচিতি পাচ্ছে।

রঙিন ধান চাষের আগ্রহ কেন হলো এমন প্রশ্নে শিক্ষক নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, ইউটিউবে পার্পল লিফ রাইস ধান চাষ দেখে তার এটি চাষের আগ্রহ তৈরি হয়। পরে ওই ধানের বীজ সংগ্রহ করতে অনেক চেষ্টার পর শালচূড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হান্নানের মাধ্যমে স্থানীয় আদিবাসী এক কৃষকের কাছ থেকে বীজ সংগ্রহ করেন। এবার পরীক্ষামূলকভাবে ১০ শতাংশ জমিতে রঙিন ধান বপন করেন।

তিনি আরো জানান, এছাড়া আরো প্রায় ১০০ শতাংশ জমিতে ‘বাংলা মতি’ ও ‘কাটারিভোগ’ নামের ধান রোপণ করেছেন। এসব ধানের ফলন কী রকম হবে, তা দেখার পর ভবিষ্যতে আবাদ বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। রঙিন ধান দেখতে প্রতিদিন উৎসুক মানুষ ভিড় করছে ফসলের মাঠে। অনেক কৃষক এই ধান আবাদ করতে বীজ চেয়েছেন বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির বলেন, এর আগে কখনো এ উপজেলায় এমন রঙিন ধানের চাষ দেখেননি। তবে এবার বেগুনি রঙের ধান চাষ হওয়ার খবর পেয়েছেন।

এ চালের ভাত খেতেও অনেক সুস্বাদু জানিয়ে ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, এই ধানের ভাত ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য বেশ উপকারী। ফলন ভালো হলে আগামীতে এই ধানের বীজ সংরক্ষণ করা হবে।

(ঢাকাটাইমস/১মে/পিএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :