ফরিদপুরে লকডাউনের আট দিনে ৪৩৮ মামলা

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬:৪১ | প্রকাশিত : ৩১ জুলাই ২০২১, ১৬:৩১

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে সারাদেশে চলমান কঠোর লকডাউনের প্রথম আট দিনে বিধিনিষেধ ভঙ্গের দায়ে ফরিদপুরে ৪৩৮ মামলা হয়েছে। এসব মামলার বিপরীতে দণ্ডপ্রাপ্তদের কাছ থেকে চার লাখ দুই হাজার ৩০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

গত ২৩ জুলাই সকাল থেকে ৩০ জুলাই রাত ১০টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ১৫ জন নির্বাহী হাকিম এই মামলাগুলো করেন। এই অভিযান চলার সময় মানুষকে ঘরে রাখতে বিভিন্ন ধরনের সচেতনতামূলক প্রচারও চালান। কঠোর লকডাউনের এই বিশেষ অভিযানে আদালতকে সহায়তা করেন জেলা পুলিশ, সেনাবাহিনীর সদস্য, বিজিবি ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা।

করোনাভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণ হারের কারণে ঈদুল আজহার পরে ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দেয় সরকার। কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে মানুষকে ঘরে রাখতে শিল্প কারখানা, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ সব ধরনের অফিস আদালত বন্ধ রাখা হয়।

ফরিদপুরের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক অতুল সরকার জানান, কঠোর লকডাউন চলাকালে সরকারি দেওয়া বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে ১৫টি ভ্রাম্যমাণ আদালত জেলার নয়টি উপজেলায় দায়িত্ব পালন করছে। সেনাবাহিনী, পুলিশ, বিজিবি ও আনসার সদস্যরা সহায়তা করছেন।

অতুল সরকার বলেন, ‘সরকারি কঠোর বিধিনিষেধ জারি থাকাকালে নিয়মিত এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হবে।’

লকডাউন বাস্তবায়নের জন্য জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে জেলায় ১৬টি স্থায়ী চেকপোস্ট এবং ২৯টি মোবাইল টিম কাজ করছে বিভিন্ন জায়গায়।’

এদিকে জেলা সিভিল সার্জন ডা. ছিদ্দীকুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ফরিদপুর পিসিআর ল্যাবে ৩৪৪ নমুনা পরীক্ষার মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ১৩২ জন। আর এই সময়ে করোনায় মারা গেছে পাঁচ ব্যক্তি।

ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. সাইফুল ইসলাম জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছে ৩৭ জন এবং বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে ২৭২ রোগী।

(ঢাকাটাইমস/৩১জুলাই/এসএ/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :