রাষ্ট্রপতির আত্মীয় পরিচয়ে প্রতারণা, নিঃস্ব বহু ট্রাভেল ব্যবসায়ী

​​​​​​​নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ১৭:৩৭ | প্রকাশিত : ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ১৭:০৭

রাজধানীর কল্যাণপুরের অরভী ওভারসিজের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ খালিকুজ্জামান হিরা। দীর্ঘদিন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শ্রমিকসহ নানা ভিসায় মানুষ পাঠানোর কাজ হয় তার প্রতিষ্ঠান থেকে। সৌদি আরবে হজযাত্রীও পাঠানো হয়।

সম্প্রতি আব্দুল আজিজ ওরফে রাসেল নামে এক ব্যক্তি নিজেকে সাবেক সেনা সদস্য, অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক এবং রাষ্ট্রপতির আত্মীয় পরিচয় দিয়ে হিরার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি হিরাকে বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুযোগ আছে। এজন্য বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিতে চান। হিরাসহ অন্যান্য ট্রাভেল ব্যবসায়ীদের বিশ্বাস অর্জনে ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের ভেতরে এককর্নেলের’ সঙ্গে মিটিং করান আজিজ।

একপর্যায়ে লেনদেনের চুক্তি শেষে ৫০টি ভিসা দেওয়ার নামে হিরার কাছ থেকে ৭০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়। কিন্তু পাসপোর্টে ভুয়া ভিসা দেওয়ায় কোনো শ্রমিকই বিদেশে যেতে পারেননি। পরে প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে টাকা ফেরত চাইতে গিয়ে দেখেন আজিজ তার সহযোগীরা সবাই আত্মগোপনে। শুধু হিরাই নন, আজিজের প্রতারণার ফাঁদে পা দিয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছেন বহু ট্রাভেল ব্যবসায়ী রিক্রুটিং এজেন্সি।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব তথ্য জানান ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ।

প্রতারণার শিকার হিরা জানান, আজিজ নিজেকে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা পরিচয় দিতেন। এছাড়া রাষ্ট্রপতির আত্মীয় পরিচয় দিয়ে কানাডা, অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন দেশের ভিসা দেওয়ার কথা বলে আমাদের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। এমনকি তার প্রতারণার বিষয়টি টের পেয়ে টাকা ফেরত চাইতে গেলে রাষ্ট্রপতির আত্মীয় পরিচয় দিয়ে উল্টো তাদের হুমকি-ধমকি দেওয়া হতো। আর আজিজ অস্ট্রেলিয়ার ফোন নম্বর ব্যবহার করতেন। তিনি সরাসরি দেখা করতেন না। এজেন্টদের মাধ্যমে যোগাযোগ করতেন।

ডিএমপির রমনা থানায় ভুক্তভোগীদের মামলার প্রেক্ষিতে সাবেক সেনা সার্জেন্ট আব্দুল আজিজসহ প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম (দক্ষিণ) বিভাগ। আব্দুল আজিজ ছাড়াও অভিযুক্ত অন্য দুজন হলেন তার সহযোগী নুরুল হুদা লুৎফর রহমান রতন।

সম্প্রতি রাজধানীর মিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে প্রতারক চক্রের মূলহোতাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের কাছ থেকে প্রতারণার টাকা হাতিয়ে নিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন ব্যাংকের কাগজ, ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড, পাসপোর্ট নকল সিল উদ্ধার করা হয়েছে।

ডিবি কর্মকর্তা হারুন-অর-রশীদ বলেন, রাষ্ট্রপতির গ্রামের বাড়ি পাবনায়। তারই এলাকার সাবেক সেনা সদস্য আব্দুল আজিজ নিজেকে রাষ্ট্রপতির আত্মীয় অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক পরিচয়ে দিয়ে বিদেশে চাকরির ভিসা দেওয়ার নামে বিভিন্ন ট্রাভেল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। আজিজের অন্যতম সহযোগী নুরুল হুদা। মাঠ পর্যায়ে তাদের হয়ে কাজ করে ফারুক, তুহিন, সরোয়ারসহ বেশ কয়েকজন এজেন্ট। তারা বিভিন্ন ট্রাভেল ব্যবসায়ীদের ভিসা দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ফাঁদে ফেলেন। আজিজের কথিত গ্রামীণ ট্রাভেলসের মাধ্যমে কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভিসা দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেন। আর নিজেকে অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক হিসেবে প্রমাণ করাতে আজিজ অস্ট্রেলিয়ার একটি ফোন নম্বর ব্যবহার করে।

আজিজ সবাইকে বলেন তিনি অস্ট্রেলিয়াতে থাকেন এবং নুরুল হুদা হলেন তার বাংলাদেশি প্রতিনিধি। ট্রাভেল ব্যবসায়ীরা সাবেক সেনা সদস্য এবং অস্ট্রেলিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর দেখে বিভ্রান্ত হয়ে তাকে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী হিসেবেই বিশ্বাস করে। তারা বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা এনে আজিজের কাছে দেয় ভিসা পাওয়ার আশায়। প্রতারক আজিজ তাদের টাকা হাতিয়ে নিয়ে অফিস গুটিয়ে আত্মগোপনে চলে যায়। আর এই সকল টাকা নিতে ব্যবহার করা ব্যাংক একাউন্ট খোলা হয় ভুয়া এনআইডি কার্ড ঠিকানায়। ফলে তাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সহজেই খুঁজে পেত না।

কে এই আজিজ?

আজিজের প্রতারক হয়ে ওঠার বিষয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন বলেন, আজিজ ১৯৬৮ সালে পাবনায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৮৭ সালে সৈনিক পদে সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। ২০০৯ সালে সার্জেন্ট পদ থেকে অবসরে যান। অবসরে যাওয়ার পরে রাজধানীর কাকরাইলে ভিশন-২০২০ নামের একটি মাইক্রোক্রেডিট নামের একটি ক্ষুদ্র ঋণদান প্রতিষ্ঠানে যুক্ত হন। সেই প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন মানুষের প্রায় পাঁচ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে। এই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে।

এরপর ২০২০ সাল থেকে নুরুল হুদার সঙ্গে গ্রামীণ ট্রাভেলস এজেন্সি থেকে অস্ট্রেলিয়া-কানাডা থেকে শুরু করে বিভিন্ন দেশে শ্রমিক পাঠানোর কথা বলে প্রতারণার জাল বিস্তার করতে শুরু করেন। তিনি প্রাক্তন সেনা সদস্য এবং অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বলে সবাইকে পরিচয় দিতেন। আর নুরুল হুদা তার দেশীয় প্রতিনিধি। তার দেশীয় কিছু সহযোগী বিভিন্ন এজেন্টের কাছে গিয়ে গ্রামীণ ট্রাভেলসের মাধ্যমে কাজ করার পরামর্শ দিতো। সকলেই জানেন তিনি অস্ট্রেলিয়াতে থাকেন। ট্রাভেল রিক্রুটিং এজেন্সী ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া কোটি কোটি টাকা নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করতেন। প্রতারক আজিজের বিরুদ্ধে পাঁচটি নুরুল হুদার বিরুদ্ধে দুটি মামলার তথ্য পাওয়া গেছে।

প্রতারণার টাকায় আজিজের যত প্রতিষ্ঠান:

ভিসা দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন ট্রাভেল ব্যবসায়ীর কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়েছেন প্রতারক আজিজ তার চক্র। এই টাকা দিয়ে আজিজ রাজধানীতে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। গোয়েন্দা পুলিশের তদন্তে উঠে এসেছে সেই সকল প্রতিষ্ঠানের নাম। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- রাজধানীর মিরপুর নম্বর এলাকায় ক্যাফে রেট্রো, মহাখালীর ডিওএইচএস এলাাকর নম্বর রোডের ১১৬ নম্বর বাড়িতে এরিস্টোক্রেট ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড টিএ এন্টারপ্রাইজ, মিরপুর-১০ নম্বর এলাকার আলোক হাসপিটালের পেছনে তার হেলথ প্রডাক্ট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান বায়োব্লু লিমিটেড, গ্রামীণ ট্রাভেলস, এয়ার প্রজেক্ট এভিয়েশন, গ্রামীণ এয়ার ট্রাভেলস, প্রাণ গ্রুপের ডিলার, গ্রামের বাড়িতে ফিশারিজসহ বিভিন্ন প্রজেক্টে বিনিয়োগ করা হয়েছে।

বিদেশি নাগরিক দেশের সম্মানিত কোনো ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিদের পরিচয় ব্যবহার করে কোনো ধরনের সুবিধা দেওয়ার কথা বলে সহজেই বিশ্বাস না করে যাচাই-বাছাইসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করে লেনদেন করার অনুরোধ জানিয়েছেন ডিএমপির এই পুলিশ কর্মকর্তা।

(ঢাকাটাইমস/০৯এপ্রিল/এসএস/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অপরাধ ও দুর্নীতি এর সর্বশেষ

এমপি আজীমের বিরুদ্ধে ২১টি মামলা ছিল, অধিকাংশই বিএনপি আমলে

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ‘ধৈর্য ধরো বিচার হবে’: আজীমের মেয়ে

পূর্বাচলে ঘুরতে নিয়ে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা, স্বামী গ্রেপ্তার

এবার এলজিইডির মুজিবুর সিকদারের স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

শিশু অপহরণ করে বিক্রি করতেন সুমাইয়া, অবশেষে গ্রেপ্তার

ডাকাতি করতে গিয়ে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অভিযুক্তরা গ্রেপ্তার

ভেজাল শিশুখাদ্য তৈরি, জেনেরিক অ্যাগ্রোকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা

হেফাজতে নারীর মৃত্যু: র‌্যাব-১৪ অধিনায়ককে সরানো হচ্ছে?

পাবজি খেলার লোভ দেখিয়ে ৩০ শিশুকে বলাৎকার, যুব অধিকার পরিষদ নেতা গ্রেপ্তার

রাজধানীতে সাড়ে ৮ হাজার লিটার বিদেশি মদসহ গ্রেপ্তার ৩

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :