চাঁদপুরের তিন উপজেলায় পৌঁছেছে নির্বাচনি সরঞ্জাম

চাঁদপুর প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২০ মে ২০২৪, ২০:০৯ | প্রকাশিত : ২০ মে ২০২৪, ২০:০৮

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে মঙ্গলবার (২১ মে) চাঁদপুর সদর, হাজীগঞ্জ ও শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে তিন উপজেলার ২৮৭টি কেন্দ্রের ইভিএম মেশিনসহ নির্বাচনি সরঞ্জাম ভোটকেন্দ্রে পৌঁছানো হয়েছে। সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে ভোট কেন্দ্রে। এই তিন উপজেলায় ২৬জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সোমবার (২০ মে) দুপুরে রিটার্নিং কর্মকর্তার সার্বিক তত্ত্ববধানে চাঁদপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে সদর উপজেলার ইভিএম মেশিনসহ নির্বাচনি সরঞ্জাম আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সার্বিক নিরাপত্তার মাধ্যমে ১৩৪টি কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়।

একইভাবে হাজীগঞ্জের ৮৮টি ও শাহরাস্তির ৬৫টি ভোটে কেন্দ্রের সরঞ্জামও উপজেলা পরিষদ থেকে কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে পাঁচ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুই জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুইজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই উপজেলায় ১৪টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা চার লাখ ১৭ হাজার ১১১জন। পুরুষ ভোটার দুই লাখ ১৬ হাজার ৮০৩জন। মহিলা ভোটার দুই লাখ ৩০৭জন। হিজড়া ভোটার একজন। ভোট কেন্দ্র ১৩৪টি।

হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কামরুজ্জামান সুমন নির্বাচিত হয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুইজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১২টি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ৮৬ হাজার ৯৪৯জন। পুরুষ ভোটার এক লাখ ৪৯ হাজার ২২০জন। মহিলা ভোটার এক লাখ ৩৭ হাজার ৭২৯জন। ভোট কেন্দ্র সংখ্যা ৮৮টি।

শাহরাস্তি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দুজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই উপজেলায় একটি পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ছয় হাজার ২৪১ জন। পুরুষ ভোটার এক লাখ চার হাজার ১১জন। মহিলা ভোটার এক লাখ দুই হাজার ২২৯জন। হিজড়া ভোটার একজন। ভোট কেন্দ্র ৬৫টি।

চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান প্রার্থী পাঁচজন থাকলেও মিজানুর রহমান ভুঁইয়া কালু (মটরসাইকেল) রবিবার বিকালে চাঁদপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।

চাঁদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ তোফায়েল হোসেন নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পর্কে বলেন, তিন উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠানে আমাদের সার্বিক প্রস্তুতি আছে। নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সার্বিক দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে সম্পন্ন করার জন্য পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের প্রশিক্ষণসহ সার্বিক দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কেউ ভোট কেন্দ্রে এসে আইন শৃঙ্খলার অবনতি করলে তাকে সর্বোচ্চ আইনের আওতায় আনা হবে।

নির্বাচনের সর্বশেষ ব্রিফিং প্যারেডে জেলা প্রশাসক (ডিসি) কামরুল হাসান বলেন, নির্বাচন কমিশনকে আমরা একটি সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে চাই। এক্ষেত্রে ইভিএমসহ সরকারি যত সম্পদ আছে সবকিছুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে ভোটারদের কেন্দ্রে এসে ভোট দেওয়ার শেষ পর্যন্ত সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। নির্বাচনি এলাকায় ইতোমধ্যে র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ, কোস্টগার্ড ও আনসার বিডিপি কাজ শুরু করছেন।

(ঢাকাটাইমস/২০মে/প্রতিনিধি/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সারাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :