লেদ মেশিনে মাদ্রাসাছাত্রকে হত্যার দায়ে যুবক গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৪ জুন ২০১৯, ১৪:০৫ | প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০১৯, ১৪:০২

লেদ মেশিনে ফেলে মাদ্রাসাছাত্র সাইফুর রহমান সাইফকে হত্যার ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তার নাম হারুন অর রশিদ। সোমবার ভোরে টঙ্গীর ঘাপরিয়া মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

র‌্যাব-১ এর সহকারী পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামান এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, দোকান ভাড়া পরিশোধ করতে দেরি হওয়ায় ‘লেদ মেশিনে’ ফেলে হত্যা করা হয় মাদ্রাসাছাত্র সাইফকে।

গত ২২ জুন টঙ্গী পূর্ব থানার মাছিমপুরের ‘নিউ মা ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপ’ নামে একটি লেদ মেশিদের দোকানে সাইফুর রহমান সাইফকে হত্যা করা হয়। সে উত্তরা ৯ নম্বর সেক্টর এমদাদুল উলুম মাদ্রাসায় হেফজ বিভাগে পড়াশোনা করত। হত্যাকা-ের ঘটনার পর তার মা বাদী হয়ে টঙ্গী পূর্ব থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, নিহত মাদ্রাসাছাত্রের বাবার একটি ওয়ার্কসপ আছে। মে মাসের ভাড়া পরিশোধ না করায় দোকান মালিক বারবার তাগাদা দেন।

ঘটনার দিন সাইফকে তার বাবা দোকান খুলতে বলে এবং তিনি ভাড়ার টাকার জোগাড় করার জন্য কয়েক জায়গায় যান। এ সময় দোকান মালিক ৫/৬ জন সহযোগী নিয়ে ভাড়ার টাকা আদায়ের জন্য যান। সাইফ তাদের জানায় তার বাবা দোকান ভাড়া জোগাড় করতে গেছেন। একথা শুনে সাইফকে ব্যাপক মারধর করে। পরে দোকানের সাঁটার বন্ধ করে চলন্ত লেদ মেশিনে ফেলে রেখে যায়। তার চিৎকারে স্থানীয়রা দোকানে লেদ মেশিনে প্যাঁচানো অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

র‌্যাব জানায়, গ্রেপ্তার হারুন নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাসের পর আমেরিকায় থেকে বিবিএ শেষ করেন। বর্তমানে সে ‘মুন সান প্রোপারটিজ’ নামে একটি ভবন নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের মালিক। এছাড়া মাছিমপুরে বেশ কয়েকটি দোকানের মালিকও সে। ঘটনার দিন রাগান্বিত হয়ে দোকানের মালিককে না পেয়ে তারা ছেলের ওপর চড়াও হয় হারুন। তার লোকজন সাইফকে মারধর করার সময় সে চলন্ত লেদ মেশিনে পড়ে যায় বলে স্বীকার করেছে।

ঢাকাটাইমস/২৪জুন/এসএস/এমআর

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :