নিউজিল্যান্ডকে আবার সুপার ওভারে হারাল ইংল্যান্ড

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৫১

অকল্যান্ডে ফিরে এল কয়েক মাস আগে লর্ডসে বিশ্বকাপ ফাইনালের স্মৃতি। সুপার ওভারে ৯ রানে জিতে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাজিমাৎ করল ইয়ন মরগ্যানের ইংল্যান্ড। পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ইংলিশরা জিতে নিল ৩-২ ব্যবধানে। রবিবার ব্যাটে-বলে ইংল্যান্ডের ম্যাচ জয়ের নায়ক অলরাউন্ডার ক্রিস জর্ডন।

চতুর্থ ম্যাচে ডেভিড মালানের বিধ্বংসী শতরানে সিরিজে সমতা ফিরিয়ে রবিবার সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিল ইংল্যান্ড। এই ম্যাচে বিশ্বকাপের ফাইনালিস্টদের দ্বৈরথে থাবা বসায় বৃষ্টি। ২০ ওভারের পরিবর্তে ম্যাচের ওভার সংখ্যা কমে দাঁড়ায় ১১-তে।

প্রথমে ব্যাট করে দুই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও কলিন মুনরোর ঝোড়ো ইনিংসে ভর করে ইংরেজদের বড় রানের লক্ষ্যমাত্রা ছুঁড়ে দেয় কিউইরা। ৩টি চার ও ৫টি ছয়ের সাহায্যে ২০ বলে ৫০ রানের ইনিংস খেলে আউট হন গাপটিল। পাশাপাশি ২টি চার ও ৪টি ছয়ের সাহায্যে ২১ বলে ৪৬ রান আসে মুনরোর ব্যাট থেকে।

চার নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ১৬ রানে ৩৯ রান করে দলের রানকে ১১ ওভারে দেড়শোর কাছাকাছি পৌঁছে দেন টিম শেইফার্ড। তাঁর ইনিংস সাজানো ছিল ৫টি ওভার বাউন্ডারি ও ১টি বাউন্ডারি দিয়ে। শেষ অবধি ১১ ওভারে ৫ উইকেটে ১৪৬ রান তোলে নিউজিল্যান্ড।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৩৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় ইংরেজরা। সেখান থেকে চতুর্থ উইকেটে জনি বেয়ারস্টো ও স্যাম কারেনের ২৪ বলে ৬১ রানের পার্টনারশিপে ম্যাচে ফেরে ৫০ ওভারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। সপ্তম ওভারে দলীয় ১০০ রানের মাথায় বেয়ারস্টো আউট হতেই ম্যাচ ঢলে পড়ে নিউজিল্যান্ডের অনুকূলে। ২টি চার ও ৫টি ছয়ে ২১ বলে ৪৭ রান করে আউট হন বেয়ারস্টো।

পরের বলেই স্টাম্পড হয়ে ডাগ-আউটে ফেরেন স্যাম কারেন। ওই একই ওভারে স্যান্টনারের শিকার হন লুইস গ্রেগরি। এরপর স্যাম বিলিংস এবং টম কারেনের ব্যাটে লক্ষ্যমাত্রার অনেকটা কাছাকাছি পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড।

শেষ ওভারে তাঁদের প্রয়োজন হয়ে দাঁড়ায় ১৬ রান। প্রথম বল থেকে দুই ও দ্বিতীয় বল থেকে ১ রান নেন স্যাম বিলিংস। তৃতীয় বলে আউট হয়ে যান টম কারেন।  

শেষ তিন বলে ক্রিজে নেমে চমক দেখান ক্রিস জর্ডন। প্রথম বলে ছয়, দ্বিতীয় বলে দুই ও শেষ বলে চার হাঁকিয়ে ম্যাচ জেতাতে না পারলেও ম্যাচ টাই করতে সক্ষম হন ইংরেজ অলরাউন্ডার। ১১ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রানেই থামে ইংল্যান্ডের ইনিংস।

এরপর সুপার ওভারে প্রথমে ব্যাট করে মরগ্যান ও বেয়ারস্টোর ব্যাটে ১৭ রান তোলে ইংল্যান্ড। পরে নিউজিল্যান্ড ব্যাটিংয়ে নেমে ৮ রান করতে সক্ষম হয়। সুপার ওভারে এক উইকেট নিয়ে মাত্র ৮ রান খরচ করেন জর্ডান। ম্যাচ জিতে ৩-২ ব্যবধানে সিরিজ কব্জা করে মরগ্যানের দল। আগামী ২১ নভেম্বর দু’ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।

(ঢাকাটাইমস/১০ নভেম্বর/এসইউএল)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :