খবরের কাগজের মাধ্যমে করোনা ছড়ায় না

ঢাকা টাইমস ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ মার্চ ২০২০, ০৯:২১

নিত্যদিনের খবরের কাগজের মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে। এই আশঙ্কায় অনেকেই বাসা-বাড়ি, অফিসে খবরের কাগজ রাখা বন্ধ করে দিয়েছেন। কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু জানিয়েছে খবরের কাগজের মাধ্যমে করোন ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা নেই। কেননা, কারণ তা ছাপা হয় পুরো যান্ত্রিক ব্যবস্থায়। প্যাকেটও করা হয় যন্ত্রেই। শুধু খবরের কাগজ নয়, ডাকে পাঠানো বা অনলাইনে অর্ডার করা পণ্যের প্যাকেট নিয়েও আশঙ্কার কিছু দেখছে না হু।

হুর বক্তব্য, ‘কেউ এক জন সংক্রমিত হলেওতাঁর থেকে প্যাকেটে বা খবরের কাগজে নোভেল করোনাভাইরাস লেগে যাওয়ার সম্ভাবনা কম। তা ছাড়া, এই ধরনের প্যাকেট ও সংবাদপত্র বহু এলাকা ও নানা রকম তাপমাত্রা পার করে পৌঁছায়। এ কারণে ওই সব প্যাকেটের বা কাগজের মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা আরও কম।’

কিন্তু সংবাদপত্র যারা বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন, তাদের নিয়ে কী ভাবা হচ্ছে? তাঁদের ছোঁয়াও আজকাল এড়ানো যাচ্ছে। দেশে-বিদেশে মাস্কের সঙ্গে গ্লাভস বা দস্তানা হাতে কাগজ বিলি, রাস্তায় ফেলে বিক্রি না-করার বন্দোবস্ত আরও নিশ্চিত করছে সুরক্ষা।

যে কারণে বিজ্ঞানী, শিক্ষক ও সংবাদপত্র শিল্পের সঙ্গে যুক্ত বিশেষজ্ঞরাও দাবি করছেন, খবরের কাগজ থেকে কোভিড-১৯ ছড়ানোর আশঙ্কা অমূলক। এর সঙ্গে, আরও স্বাস্থ্যসম্মত ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশে উৎপাদন ও বণ্টনের আশ্বাসও দিচ্ছে সংবাদপত্র সংস্থাগুলো। ভরসা জোগাচ্ছে আর একটি তথ্যও। বিশ্বের এতগুলো দেশে রোগটি ছড়িয়েছে, কিন্তু আজ পর্যন্ত সংবাদপত্র, ছাপা পত্রপত্রিকা বা চিঠি থেকে কোভিড-১৯ হওয়ার ঘটনা ঘটেনি।

বিশ্বের শীর্ষ স্তরের বিজ্ঞানী ও চিকিৎসকেরাই জানাচ্ছেন এ কথা। ইন্টারন্যাশনাল নিউজ় মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশনের সিইও ই জে উইলকিনসন নিজের ব্লগেও তা উল্লেখ করেছেন। তাই নিশ্চিন্তে রোজকার খবরের কাগজ পড়ুন।

(ঢাকাটাইমস/২৫মার্চ/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :