রাজশাহী বিভাগে করোনার নতুন হটস্পট বগুড়া

ব্যুরো প্রধান, রাজশাহী
 | প্রকাশিত : ২৪ মে ২০২০, ১৫:৫৭

রাজশাহী বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০৫ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণঘাতি করোনা ধরা পড়েছে ৫৪ জনের শরীরে। এর মধ্যে ২৫ জনই বগুড়ার বাসিন্দা। এর আগের দিনও বগুড়ায় শনাক্ত হয় ২৪ জন।

ওই সময়ের মধ্যে রাজশাহী বিভাগে করোনায় যে দুজন মারা গেছেন এদেরও একজনের বাড়ি বগুড়ায়, অন্যজনের রাজশাহীতে। সর্বোচ্চ ১৬৬ জনের করোনা ধরা পড়ায় বিভাগে করোনার নতুন হটস্পট এখন বগুড়া জেলা। এই জেলার ২৮ করোনা আক্রান্ত এখন হাসপাতালে। করোনা জয় করেছেন ১৭ জন।

রবিবার দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. গোপেন্দ্রনাথ আচার্য্য এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, এ পর্যন্ত বিভাগের আট জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬০৫ জনের। এর মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১৭৮ জন। করোনায় প্রাণ গেছে এ পর্যন্ত পাঁচজনের। করোনা জয় করে ঘরে ফিরেছেন ১৩১ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে, বগুড়ার আগে করোনার হটস্পট ছিল জয়পুরহাট জেলা। তারপর হটস্পটে পরিণত হয় নওগাঁ। এখন হটস্পট বগুড়া। এ জেলায় একজন করোনাযুদ্ধে পরাজিত হয়ে মারাও গেছেন।

গোটা বিভাগে এখন মৃতের সংখ্যা ৫। বগুড়ার একজন ছাড়াও রাজশাহীতে ২ এবং নাটোর ও সিরাজগঞ্জে একজন করে করোনায় মারা গেছেন। রাজশাহী জেলায় এখন করোনা রোগী ৩৯ জন। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে সংক্রমণ নেই। জয়পুরহাটে সব মিলিয়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৪৪ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১২ জনের।

নওগাঁয় বিভাগের তৃতীয় সর্বোচ্চ ১০৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় এ জেলায় ১২ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এ পর্যন্ত পাবনায় ৩১ জন এবং নাটোরে ৫১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

তবে নতুন করে করোনা ধরা পড়েনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়। পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৪৬ জন, পাবনায় ৩১ জন এবং সিরাজগঞ্জে ২৪ জনের করোনা ধরা পড়েছে। গোটা বিভাগে এখন ১৭৮ জন হাসপাতালে ভর্তি থেকে করোনার সাথে লড়ছেন। আর ইতোমধ্যে করোনা জয় করেছেন বিভাগের ১৩১ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. গোপেন্দ্রনাথ আচার্য্য বলেন, রাজশাহী বিভাগে গত ১২ এপ্রিল প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। এরপর আক্রান্তের সংখ্যাটি প্রতিদিনই বাড়ছে। ঈদের পর পরিস্থিতির অবনতিরও আশঙ্কা রয়েছে। তাই এখন মানুষের সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। করোনা মোকাবিলায় মানুষকেও সচেতন হতে হবে। সরকারের দেয়া নির্দেশনাবলী মানতে হবে। তাহলে পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

ঢাকাটাইমস/২৪মে/আরআর/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত