‘পরিবেশ যতই প্রতিকূল হোক শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবো’

বোরহান উদ্দিন, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১০ নভেম্বর ২০২০, ২০:০২ | প্রকাশিত : ১০ নভেম্বর ২০২০, ১৯:৩৬

ঢাকা-১৮ আসনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেছেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার কোনো লক্ষণ নেই। নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যাচ্ছে না। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও কোনো সহযোগিতা করছে না। তবে এত প্রতিকূলতার মধ্যেও শেষ পর্যন্ত ভোটের মাঠে থাকবেন। এরপরেও যদি নির্বাচন সুষ্ঠু না হয় তাহলে নির্বাচনের অনিয়মের ইস্যুতে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু করবেন।

আগামী ১২ নভেম্বর ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনকে সামনে রেখে প্রচারণার শেষ বেলায় ঢাকা টাইমসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে একথা বলেন যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর।

মুঠোফোন সাক্ষাৎকারে এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন নির্বাচনের ভোট, প্রচার-প্রচারণার পরিবেশ, নিজেদের অবস্থান, নির্বাচিত হলে এলাকা ঘিরে তার উন্নয়ন পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।

সুষ্ঠু নির্বাচনের বিষয়ে কতটা আশাবাদী জানতে চাইলে এস এম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘বর্তমান সরকার আজ পর্যন্ত সুষ্ঠু নির্বাচন করেনি। তারা সন্ত্রাসী কায়দায় রাতের অন্ধকারে ভোট ছিনতাই করে নির্বাচন করেছে। এবার ইভিএমে নির্বাচন। তারপরও কারচুপি করার চেষ্টার লিপ্ত আছে। আমরা চেষ্টা করবো এটাকে প্রতিহত করার জন্য এবং জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার জন্য। আমরা জনগণকে উদ্বুদ্ধ করছি কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য।’

‘আর নিবার্চন কমিশন ও প্রশাসনের কাছে অনুরোধ থাকবে সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রেখে নিরপেক্ষ করার চেষ্টা করুন। এই নিবার্চন কোনো কারচুপি না করে জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেবে এটাই আমার প্রত্যাশা।’

নির্বাচন কমিশনের কার্যক্রম নিয়ে একাধিকবার অভিযোগ করেছেন। এখন পরিস্থিতি কেমন দেখছেন?

এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ঢাকা-১৮ আসনে এখনো নির্বাচনের কোনো পরিবেশ নেই। এখনো নির্বাচন কমিশন এখানে নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারেনি। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। এর কারণ হচ্ছে, যাতে জনগণ ভোটকেন্দ্রে না যায়। তারা কোনোভাবেই চাচ্ছেন না বিএনপির নেতাকর্মীরা মাঠে থাকুক এবং ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে যাক।’

‘ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে গেলে তারা ধানের শীষে ভোট দেবে-এ কারণেই আওয়ামী লীগ সন্ত্রাস করছে। ধানের শীষের গণজোয়ার দেখে ভীত হয়ে অতীতের মতো গায়েবি মামলা দেয়া শুরু করেছে। পুলিশ প্রশাসন বাড়ি বাড়ি যাচ্ছে এবং হুমকি দিচ্ছে। বিএনপি সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করছে।’

বিএনপি নেতাকর্মীরা নির্বাচনের দিনে মাঠে থাকেন না- এমন অভিযোগের বিষয়ে জাহাঙ্গীর বলেন, ‘এই অভিযোগ সত্য নয়। বিএনপি নেতাকর্মীরা মাঠে থাকতে চান। কিন্তু ক্ষমতসীনদের হামলা এবং প্রশাসনের চাপে তারা মাঠে টিকে থাকতে পারেন না। কিন্তু এবার শত বাধা উপেক্ষা করে বিএনপির নেতাকর্মীরা ভোটকেন্দ্রে যাবেন, ভোটারও যাবেন। এরপরেও যদি অনিয়ম হয় এবার ঢাকা-১৮ আসন থেকে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে।’

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর প্রতি কোনো আহ্বান আছে কি না- এই প্রশ্নের জবাবে জাহাঙ্গীর বলেন, ‘তার কাছে (আওয়ামী লীগের প্রার্থী) প্রশ্ন আপনারা কেন সন্ত্রাস করছেন? এই নির্বাচনে হেরে গেলে তো আপনাদের ক্ষমতা হারাতে হচ্ছে না। বরং ভোটাদের সুষ্ঠু পরিবেশে ভোট দিতে দিলে আপনাদেরই লাভ।’

ভোটারদের উদ্দেশে কোনো বার্তা দেবেন কি না- জবাবে এস এম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘আজ গণতন্ত্রের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া গৃহবন্দি। তারই বড় ছেলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান পরদেশে। দেশে আজ গণতন্ত্র, আইনের শাসন এমনকি মানুষের মৌলিক মানবাধিকার নেই। জনগণের জবাবদিহিমূলক সরকার নেই। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি। একটি অনির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় থাকায় দেশের আজ এই অবস্থা। তাই দেশ ও গণতন্ত্রের স্বার্থে ধানের শীষে ভোট দিন।’

(ঢাকাটাইমস/১০নভেম্বর/বিইউ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :