সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বেই খুন হয় রাহাত: সিআইডি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৫:১০ | প্রকাশিত : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৫:০৭

সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে খুন হয়েছে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা কলেজের মেধাবী ছাত্র আরিফুল ইসলাম রাহাত। এ তথ্য জানিয়েছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) এলআইসি শাখার বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সিআইডির সদর দপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার দুর্গম চর এলাকা থেকে শামসুদ্দোহা সাদীকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। গ্রেপ্তারকৃত শামসুদ্দোহা সাদী সিলেট জেলার মোগলাবাজার থানার সিলাম টিকরপাড়া গ্রামের মৃত মোবারক আলীর ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে মুক্তাধর বলেন, গত ২১ অক্টোবর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে দক্ষিণ সুরমা সরকারি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম রাহাত খুন হয়। দক্ষিণ সুরমা সরকারি কলেজের প্রবেশ গেইটের মাত্র ১০ গজ দূরে ওই কলেজের ছাত্র শামসুদ্দোহা সাদীর হাতে রাহাত খুন হয়।

এ ঘটনায় নিহতের চাচা শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে গত ২২ অক্টোবর দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় শামসুদ্দোহা সাদীসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা পাঁচ থেকে সাতজনকে আসামি করা হয়েছে।

সিআইডির এলআইসি শাখার বিশেষ পুলিশ সুপার বলেন, এই ঘটনার প্রতিবাদে হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারসহ বিচার ও সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে কলেজের সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা আন্দোলন শুরু করে। পরে কলেজ কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য কলেজে পাঠদান বন্ধ ঘোষণা করে।

ঘটনাটি দেশজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে এবং বিভিন্ন প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় বেশ গুরুত্বের সাথে প্রচারিত হয়। এরপর সিআইডি ঘটনাটির ছায়া তদন্ত শুরু করে। সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধরের সার্বিক দিক নির্দেশনায় এলআইসির একটি চৌকস টিম কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার দুর্গম চর এলাকা থেকে মামলার প্রধান আসামি শামসুদ্দোহা সাদীকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃতের বরাত দিয়ে মুক্তাধর বলেন, নিহত রাহাত ও আসামি সাদী একই কলেজের একই শ্রেণির ছাত্র। সাদী কলেজের পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দা হওয়ায় এবং বয়সে রাহাতের চেয়ে কিছুটা বড় হওয়ায় সে রাহাতের কাছে জ্যেষ্ঠতা দাবি করে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় উভয়ের মধ্যে চলমান বিবাদের অংশ হিসেবে হত্যাকাণ্ড ঘটে।

নিহত আরিফুল ইসলাম রাহাত সিলেট জেলার দক্ষিণ সুরমা উপজেলার পুরান তেতলী গ্রামের সুরমান আলীর ছেলে।

(ঢাকাটাইমস/২৭অক্টোবর/এএ/কেআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :