ওডেসার পর মাইকোলাইভেও হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০২ জুলাই ২০২২, ১৭:০৮ | প্রকাশিত : ০২ জুলাই ২০২২, ১৭:০৪
মিসাইল হামলার পর ক্ষতিগ্রস্ত মাইকোলাইভের একটি ভবন- রয়টার্স

ইউক্রেনের বন্দর নগরী ওডেসার পর এবার দক্ষিণ ইউক্রেনীয় শহর মাইকোলাইভে হামলার রুশ হামলার খবর পাওয়া গেছে। শনিবার মাইকোলাইভের একটি অ্যাপার্টমেন্ট ব্লক এবং শপিং মলে রাশিয়া ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছেন শহরটির মেয়র অলেক্সান্ডার সেনকেভিচ। খবর রয়টার্সের।

ওডেসার গুরুত্বপূর্ণ কৃষ্ণ সাগর বন্দরের সীমান্তবর্তী মাইকোলাইভ অঞ্চলে শনিবার সকালে বিমান হামলার সাইরেন বেজে ওঠে।

টেলিগ্রাম মেসেজিং অ্যাপে মেয়র অলেক্সান্ডার সেনকেভিচ লিখেছেন, ‘শহরে শক্তিশালী বিস্ফোরণ ঘটছে, সকলে আশ্রয়কেন্দ্রে থাকুন।’

হামলায় কয়েক ডজন লোক নিহত হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

বিস্ফোরণের কারণ তাৎক্ষণিকভাবে পরিষ্কার হয়নি। যদিও শনিবার রাশিয়া বলেছে, তারা ওই এলাকায় সেনা কমান্ড পোস্টে হামলা করেছে।

কিয়েভ দাবি করছে, মস্কো ফ্রন্টলাইন থেকে দূরে লক্ষ্যবস্তুতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা জোরদার করেছে এবং এটি ইচ্ছাকৃতভাবে বেসামরিক স্থাপনাগুলিতে আঘাত করেছে। এই মুহুর্তে রুশ বাহিনী পূর্ব ইউক্রেনের যুদ্ধক্ষেত্রে লাভগুলি পিষে চলেছে, কামান দিয়ে শহুরে অঞ্চলগুলিকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।

তবে বেসামরিকদের লক্ষ্যবস্তু করার কথা অস্বীকার করেছে রাশিয়া। তারা বলছে, সামরিক স্থাপনাগুলিকে লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, রাশিয়ান সশস্ত্র বাহিনী বেসামরিক লক্ষ্যবস্তু নিয়ে কাজ করে না।

শুক্রবার ওডেসার একটি অ্যাপার্টমেন্ট ব্লকে এবং কেন্দ্রীয় শহর ক্রেমেনচুকের একটি শপিং মলে রাশিয়ার হামলায়, অন্তত ২১ জন নিহত হয়েছে।

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি ভলোদিমির জেলেনস্কি শুক্রবার রাতের ভিডিও ভাষণে এই হামলাকে ‘সচেতন, ইচ্ছাকৃতভাবে রাশিয়ান সন্ত্রাসকে লক্ষ্যবস্তু করা এবং কোনও ধরণের ত্রুটি বা কাকতালীয় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা নয়’ বলে নিন্দা করেছেন।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে রাশিয়ান সংস্থাগুলি শনিবার জানিয়েছে, তারা মাইকোলাইভ এবং পূর্ব দনবাস অঞ্চলে উচ্চ-নির্ভুল অস্ত্র দিয়ে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর পোস্টগুলি ধ্বংস করেছে, দক্ষিণ জাপোরিঝিয়া অঞ্চল এবং উত্তরে খারকিভের সামরিক-সম্পর্কিত অন্যান্য স্থানে হামলা করেছে।

(ঢাকাটাইমস/২জুলাই/এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :